০৯:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

৫০ ওভারে ৪৯৮ রানের নতুন বিশ্ব রেকর্ড ইংল্যান্ডের

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৪:২৭:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ জুন ২০২২
  • / ৮৩৯ বার পড়া হয়েছে

bdopennews

মাঠে থাকবেন ফিল্ডাররা। না, বল খুঁজতে মাঠের বাইরে ঝোপঝাড় মারতে হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে সয়লাব এই ছবিতে।

একজন ক্রিকেট ভক্ত মজা করে টুইট করেছেন, “নেদারল্যান্ডসের ফিল্ডারদের জন্য মাঠের বাইরে থাকা নিরাপদ। ভিতরে কী হচ্ছে!

কি? ঝড় কম বলা হয়. টর্নেডো, টাইফুন, ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছ্বাস, জলোচ্ছ্বাস—এগুলি এমন কিছু শব্দ যা আজ অ্যামস্টেলভিনে ইংল্যান্ড ও নেদারল্যান্ডসের মধ্যে প্রথম ওয়ানডেতে ইংল্যান্ডের ইনিংসের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।

ম্যাচটি না দেখে থাকলে পরের প্রশ্ন হতেই হবে- কেন? চলুন মোকাবেলা করা যাক. আইসিসির মিত্র ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পূর্ণ শক্তি পাঠায়নি। শুধু তাই নয়, হয়ে গেল ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহের রেকর্ড!

আজ নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ড প্রথমে ব্যাট করে ৪ উইকেটে ৪৯৬ রান করেছে। এর আগে ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহের রেকর্ড ছিল ইংল্যান্ডের দখলে। 2016 সালে, ইংল্যান্ড নটিংহামে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে 6 উইকেটে 461 রান করেছিল।

সেই রেকর্ড আজ নতুন করে লিখল ইউইন মরগানের দল। সবচেয়ে বেশি ওডিআই দল সংগ্রহের শীর্ষ চারটি রেকর্ড ইংল্যান্ডের দখলে। লিস্ট এ ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি রানের রেকর্ড আজ নতুন করে লিখল ইংল্যান্ড

2015 বিশ্বকাপের পর থেকে ইংল্যান্ড তাদের ওডিআই খেলার ধরণ পরিবর্তন করেছে। সেই সিরিজে আজ নতুন ইতিহাস রচনা করলেন জস বাটলার ও ডেভিড মালান।

এক ইনিংসে তিন-তিনটি সেঞ্চুরি! চতুর্থ ওয়ানডে খেলতে নামা বাটলার, মালান এবং ওপেনার ফিল সল্ট সেঞ্চুরি তুলে নেন। সবচেয়ে ধ্বংসাত্মক ছিলেন বাটলার। বাটলার 60 বলে 14 ছক্কা ও 6 চারের সাহায্যে 162 রানের ইনিংস খেলেন। ফিল সল্ট ৯৩ বলে ৩ ছক্কা ও ১৪ চারে ১২২ রান করেন। মালান ১০৯ বলে ৩ ছক্কা ও ৯ চারে ১২৫ রান করেন। শেষ পর্যন্ত, লিয়াম লিভিংস্টোন ওয়ানডেতে দ্রুততম হাফ সেঞ্চুরির রেকর্ডটি ভেঙে ফেলতেন।

লিভিংস্টোনও 22 বলে ছয়টি ছয় ও ছয়টি চারের সাহায্যে 16 বলে হাফ সেঞ্চুরি করেন। ওয়ানডেতে দ্রুততম হাফ সেঞ্চুরির রেকর্ডটি এবি ডি ভিলিয়ার্সের দখলে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১৮ বলে। ছুঁতে না পারলেও লিভিংস্টোন ইংল্যান্ডের হয়ে ওয়ানডেতে দ্রুততম হাফ সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েন।

প্রোটিয়া কিংবদন্তির আরেকটি রেকর্ড অল্পের জন্য টিকে আছে। ওয়ানডেতে দ্রুততম ১৫০ রানের রেকর্ডও ডি ভিলিয়ার্সের। তিনি 2014 সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে 74 বলে রেকর্ড গড়েছিলেন। বাটলার 75 বলে 150 রানের মাইলফলক ছুঁয়েছিলেন এবং কিছুক্ষণ ধরে রাখতে পারেননি।

৪৮ ওভার শেষে ইংল্যান্ডের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৪৬০ রান। তখন মনে হচ্ছিল ওয়ানডেতে প্রথমবারের মতো ৫০০ রান দেখা যাবে। ইংল্যান্ডের পুরো ইনিংস জুড়ে যেভাবে কঠিন ব্যাটিং করেছে তাতে শেষ দুই ওভারে ত্রিশ রান অসম্ভব ছিল না! উইকেটে ছিলেন বাটলার-লিভিংস্টোনও।

দুর্ভাগ্যবশত, 49তম ওভারে 6 রান এবং 50তম ওভারে 21 রান পাঁচশের দেখা পাননি। কিন্তু ইংল্যান্ডের সৌজন্যে ওডিআই ক্রিকেটে কী দেখা গেল বিপ্লবের জোয়ার, নাকি কম!

তবে শুরুটা ভালো হয়নি ইংল্যান্ডের। ১.৩ ওভারে ওপেনার জেসন রয়কে হারিয়ে বিপদে পড়ে সফরকারী দল। মজার ব্যাপার হল, রয়কে তার ‘কাজিন’ শেন স্নাইডার বরখাস্ত করেছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকান বংশোদ্ভূত রয় জিম্বাবুয়ে বংশোদ্ভূত ছিনতাইকারীর হাতে বোল্ড হয়েছিলেন। সে যাই হোক না কেন, রান ফোয়ার শুরু হয়েছে তখন থেকেই।

দ্বিতীয় উইকেটে সল্ট ও মালান ১৬০ বলে ২২২ রানের জুটি গড়েন। বাটলার-মালান সল্ট আউট হওয়ার পর তৃতীয় উইকেটে 90 বলে 184 রান করেন। পঞ্চম উইকেটে বাটলার-লিভিংস্টোনের রান-স্কোরিং গতি আরও দ্রুততর হয়েছিল ৬৩২ বলে অপরাজিত ৯১*।

নেদারল্যান্ডসের বোলারদের বোলিং পরিসংখ্যানে নজর রাখা কঠিন। প্রতি ওভারে ৬ রানের কম করেননি কেউ। ডাচ লেগ-স্পিনার ফিলিপ বোইসভেন 10 ওভারে 106 রান দিয়ে উইকেটহীন।

ওয়ানডেতে সবচেয়ে দামি বোলারের তালিকায় বোইসেভেনকে চারে তুলেছে ইংল্যান্ড

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

৫০ ওভারে ৪৯৮ রানের নতুন বিশ্ব রেকর্ড ইংল্যান্ডের

আপডেট সময় ০৪:২৭:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ জুন ২০২২

মাঠে থাকবেন ফিল্ডাররা। না, বল খুঁজতে মাঠের বাইরে ঝোপঝাড় মারতে হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে সয়লাব এই ছবিতে।

একজন ক্রিকেট ভক্ত মজা করে টুইট করেছেন, “নেদারল্যান্ডসের ফিল্ডারদের জন্য মাঠের বাইরে থাকা নিরাপদ। ভিতরে কী হচ্ছে!

কি? ঝড় কম বলা হয়. টর্নেডো, টাইফুন, ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছ্বাস, জলোচ্ছ্বাস—এগুলি এমন কিছু শব্দ যা আজ অ্যামস্টেলভিনে ইংল্যান্ড ও নেদারল্যান্ডসের মধ্যে প্রথম ওয়ানডেতে ইংল্যান্ডের ইনিংসের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।

ম্যাচটি না দেখে থাকলে পরের প্রশ্ন হতেই হবে- কেন? চলুন মোকাবেলা করা যাক. আইসিসির মিত্র ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পূর্ণ শক্তি পাঠায়নি। শুধু তাই নয়, হয়ে গেল ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহের রেকর্ড!

আজ নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ড প্রথমে ব্যাট করে ৪ উইকেটে ৪৯৬ রান করেছে। এর আগে ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহের রেকর্ড ছিল ইংল্যান্ডের দখলে। 2016 সালে, ইংল্যান্ড নটিংহামে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে 6 উইকেটে 461 রান করেছিল।

সেই রেকর্ড আজ নতুন করে লিখল ইউইন মরগানের দল। সবচেয়ে বেশি ওডিআই দল সংগ্রহের শীর্ষ চারটি রেকর্ড ইংল্যান্ডের দখলে। লিস্ট এ ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি রানের রেকর্ড আজ নতুন করে লিখল ইংল্যান্ড

2015 বিশ্বকাপের পর থেকে ইংল্যান্ড তাদের ওডিআই খেলার ধরণ পরিবর্তন করেছে। সেই সিরিজে আজ নতুন ইতিহাস রচনা করলেন জস বাটলার ও ডেভিড মালান।

এক ইনিংসে তিন-তিনটি সেঞ্চুরি! চতুর্থ ওয়ানডে খেলতে নামা বাটলার, মালান এবং ওপেনার ফিল সল্ট সেঞ্চুরি তুলে নেন। সবচেয়ে ধ্বংসাত্মক ছিলেন বাটলার। বাটলার 60 বলে 14 ছক্কা ও 6 চারের সাহায্যে 162 রানের ইনিংস খেলেন। ফিল সল্ট ৯৩ বলে ৩ ছক্কা ও ১৪ চারে ১২২ রান করেন। মালান ১০৯ বলে ৩ ছক্কা ও ৯ চারে ১২৫ রান করেন। শেষ পর্যন্ত, লিয়াম লিভিংস্টোন ওয়ানডেতে দ্রুততম হাফ সেঞ্চুরির রেকর্ডটি ভেঙে ফেলতেন।

লিভিংস্টোনও 22 বলে ছয়টি ছয় ও ছয়টি চারের সাহায্যে 16 বলে হাফ সেঞ্চুরি করেন। ওয়ানডেতে দ্রুততম হাফ সেঞ্চুরির রেকর্ডটি এবি ডি ভিলিয়ার্সের দখলে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১৮ বলে। ছুঁতে না পারলেও লিভিংস্টোন ইংল্যান্ডের হয়ে ওয়ানডেতে দ্রুততম হাফ সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েন।

প্রোটিয়া কিংবদন্তির আরেকটি রেকর্ড অল্পের জন্য টিকে আছে। ওয়ানডেতে দ্রুততম ১৫০ রানের রেকর্ডও ডি ভিলিয়ার্সের। তিনি 2014 সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে 74 বলে রেকর্ড গড়েছিলেন। বাটলার 75 বলে 150 রানের মাইলফলক ছুঁয়েছিলেন এবং কিছুক্ষণ ধরে রাখতে পারেননি।

৪৮ ওভার শেষে ইংল্যান্ডের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৪৬০ রান। তখন মনে হচ্ছিল ওয়ানডেতে প্রথমবারের মতো ৫০০ রান দেখা যাবে। ইংল্যান্ডের পুরো ইনিংস জুড়ে যেভাবে কঠিন ব্যাটিং করেছে তাতে শেষ দুই ওভারে ত্রিশ রান অসম্ভব ছিল না! উইকেটে ছিলেন বাটলার-লিভিংস্টোনও।

দুর্ভাগ্যবশত, 49তম ওভারে 6 রান এবং 50তম ওভারে 21 রান পাঁচশের দেখা পাননি। কিন্তু ইংল্যান্ডের সৌজন্যে ওডিআই ক্রিকেটে কী দেখা গেল বিপ্লবের জোয়ার, নাকি কম!

তবে শুরুটা ভালো হয়নি ইংল্যান্ডের। ১.৩ ওভারে ওপেনার জেসন রয়কে হারিয়ে বিপদে পড়ে সফরকারী দল। মজার ব্যাপার হল, রয়কে তার ‘কাজিন’ শেন স্নাইডার বরখাস্ত করেছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকান বংশোদ্ভূত রয় জিম্বাবুয়ে বংশোদ্ভূত ছিনতাইকারীর হাতে বোল্ড হয়েছিলেন। সে যাই হোক না কেন, রান ফোয়ার শুরু হয়েছে তখন থেকেই।

দ্বিতীয় উইকেটে সল্ট ও মালান ১৬০ বলে ২২২ রানের জুটি গড়েন। বাটলার-মালান সল্ট আউট হওয়ার পর তৃতীয় উইকেটে 90 বলে 184 রান করেন। পঞ্চম উইকেটে বাটলার-লিভিংস্টোনের রান-স্কোরিং গতি আরও দ্রুততর হয়েছিল ৬৩২ বলে অপরাজিত ৯১*।

নেদারল্যান্ডসের বোলারদের বোলিং পরিসংখ্যানে নজর রাখা কঠিন। প্রতি ওভারে ৬ রানের কম করেননি কেউ। ডাচ লেগ-স্পিনার ফিলিপ বোইসভেন 10 ওভারে 106 রান দিয়ে উইকেটহীন।

ওয়ানডেতে সবচেয়ে দামি বোলারের তালিকায় বোইসেভেনকে চারে তুলেছে ইংল্যান্ড