০৩:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত কলেজ শিক্ষিকার মৃত্যু

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৯:৩৯:১০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ অগাস্ট ২০২২
  • / ৮৫৮ বার পড়া হয়েছে

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত কলেজ শিক্ষিকার মৃত্যু

কলেজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন নেত্রকোনা সরকারি কলেজের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রাজিয়া সুলতানা লিজা (৪০)। শনিবার (৬ আগস্ট) বেলা ১১টায় তার কর্মস্থল নেত্রকোনা সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণে ও পৌর কবরস্থানে দাফন করা হয়।

এর আগে শুক্রবার বিকেলে ঢাকার এভার কেয়ার হাসপাতালে তার মৃত্যু হয় এবং রাতে তার মরদেহ জেলায় আনা হয়। রাজিয়া সুলতানা মোহনগঞ্জ উপজেলার তেতুলিয়া ইউনিয়নের বড় পাইকুড়া গ্রামের প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা বজলুর রহমান মুকুল ও সৈয়দা পারুল বেগমের দ্বিতীয় সন্তান।

জানা যায়, গত বুধবার (৩ আগস্ট) নেত্রকোনা সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক রাজিয়া সুলতানা কাজ থেকে ময়মনসিংহে ভাড়া বাসায় ফিরছিলেন। পথে নেত্রকোনা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে বাসটি উল্টে খাদে পড়ে যায়। এ সময় কয়েকজন আহত হলে তিনিও গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।

সেখানে দুই দিন চিকিৎসার পর অবস্থার অবনতি হলে শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকার এভার কেয়ার হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এদিকে প্রিয়জনের মৃত্যুর খবর এলাকায় এলে সহকর্মী শিক্ষার্থী ও স্বজনদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে।

পরে শনিবার সকালে নেত্রকোনা সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণে জানাজায় হাজার হাজার মানুষ জড়ো হন। জানাজায় অংশ নেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর নুরুল বাসেত, নেত্রকোনা সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ ড. সিরাজুল ইসলাম, মহিলা কলেজের সহকারী অধ্যাপক চিত্রশিল্পী মো. কামরুল হাসানসহ তার প্রতিষ্ঠানের বন্ধু ও আত্মীয়স্বজন এবং ২৮তম বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারের সহকর্মী শিক্ষার্থীরা।

কর্মজীবনের শুরু থেকেই তিনি মায়ের সঙ্গে নেত্রকোনা শহরের নাগড়া এলাকায় থাকতেন। মাস ছয়েক আগে বাসা বদল করেন

তিনি শহরের একটি ভাড়া বাড়িতে যান। বিয়ে না হওয়ায় মায়ের সঙ্গে থাকতেন। ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন কলেজ থেকে শিক্ষা শেষ করে রাজিয়া ২০১০ সালে নেত্রকোনা সরকারি কলেজের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রভাষক হিসেবে ২৮তম বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারে যোগদান করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত কলেজ শিক্ষিকার মৃত্যু

আপডেট সময় ০৯:৩৯:১০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ অগাস্ট ২০২২

কলেজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন নেত্রকোনা সরকারি কলেজের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রাজিয়া সুলতানা লিজা (৪০)। শনিবার (৬ আগস্ট) বেলা ১১টায় তার কর্মস্থল নেত্রকোনা সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণে ও পৌর কবরস্থানে দাফন করা হয়।

এর আগে শুক্রবার বিকেলে ঢাকার এভার কেয়ার হাসপাতালে তার মৃত্যু হয় এবং রাতে তার মরদেহ জেলায় আনা হয়। রাজিয়া সুলতানা মোহনগঞ্জ উপজেলার তেতুলিয়া ইউনিয়নের বড় পাইকুড়া গ্রামের প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা বজলুর রহমান মুকুল ও সৈয়দা পারুল বেগমের দ্বিতীয় সন্তান।

জানা যায়, গত বুধবার (৩ আগস্ট) নেত্রকোনা সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক রাজিয়া সুলতানা কাজ থেকে ময়মনসিংহে ভাড়া বাসায় ফিরছিলেন। পথে নেত্রকোনা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে বাসটি উল্টে খাদে পড়ে যায়। এ সময় কয়েকজন আহত হলে তিনিও গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।

সেখানে দুই দিন চিকিৎসার পর অবস্থার অবনতি হলে শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকার এভার কেয়ার হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এদিকে প্রিয়জনের মৃত্যুর খবর এলাকায় এলে সহকর্মী শিক্ষার্থী ও স্বজনদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে।

পরে শনিবার সকালে নেত্রকোনা সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণে জানাজায় হাজার হাজার মানুষ জড়ো হন। জানাজায় অংশ নেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর নুরুল বাসেত, নেত্রকোনা সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ ড. সিরাজুল ইসলাম, মহিলা কলেজের সহকারী অধ্যাপক চিত্রশিল্পী মো. কামরুল হাসানসহ তার প্রতিষ্ঠানের বন্ধু ও আত্মীয়স্বজন এবং ২৮তম বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারের সহকর্মী শিক্ষার্থীরা।

কর্মজীবনের শুরু থেকেই তিনি মায়ের সঙ্গে নেত্রকোনা শহরের নাগড়া এলাকায় থাকতেন। মাস ছয়েক আগে বাসা বদল করেন

তিনি শহরের একটি ভাড়া বাড়িতে যান। বিয়ে না হওয়ায় মায়ের সঙ্গে থাকতেন। ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন কলেজ থেকে শিক্ষা শেষ করে রাজিয়া ২০১০ সালে নেত্রকোনা সরকারি কলেজের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রভাষক হিসেবে ২৮তম বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারে যোগদান করেন।