১১:৫১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪

শ্রীরাম ও মাহমুদ শারজাহ সফরে ঝাটিকা অবস্থা দেখতে

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৩:১৩:০০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ অগাস্ট ২০২২
  • / ৪৩৭ বার পড়া হয়েছে

bdopennews

সংবাদ সম্মেলনের পর শ্রীধরন শ্রীরাম তড়িঘড়ি করে চলে যান। ততক্ষণে দুবাইয়ের আইসিসি একাডেমি মাঠে অনুশীলন শুরু করেছেন বাংলাদেশ দলের পাঁচ-ছয়জন ক্রিকেটার।

ম্যাচের আগের দিন ঐচ্ছিক অনুশীলনের কারণে আজ মাঠে নামেনি সব দল। কিন্তু শ্রীধরন শ্রীরামের দৌড় দেখে মনে হয়, দলের টেকনিক্যাল কনসালট্যান্ট যে অনুশীলনে এসেছেন তাদের যোগ দিতে এত ব্যস্ত।

শ্রীরামের বাগদানের ভিন্ন কারণ পরে প্রকাশ্যে আসে। এশিয়া কাপে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচের ভেন্যু শারজাহ যাবেন তিনি। তার সঙ্গী বাংলাদেশ দলের টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ। শারজার অবস্থা নিজ চোখে দেখতে আসবেন দুজনেই। আগামীকাল শারজার ছোট বাউন্ডারি মাঠে আফগানিস্তানের বিপক্ষে এবারের এশিয়া কাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।

প্রায় এক সপ্তাহের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে পৌঁছেছে বাংলাদেশ দল। এ পর্যন্ত তিনটি অনুশীলন সেশন হয়েছে, তিনটিই দুবাইয়ে। এখন পর্যন্ত শারজায় একদিনের জন্যও অনুশীলন করেনি বাংলাদেশ দল। বছরের এই সময়ে সেখানে কী অবস্থা হবে তা বোঝার জন্য শ্রীরাম ও মাহমুদের আকস্মিক সফর।

শারজায় গাড়ি ধরার আগে সাংবাদিক সম্মেলনে সেখানকার পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্নের সম্মুখীন হন শ্রীরাম। খেলোয়াড় হিসেবে শারজার অভিজ্ঞতা রয়েছে তার।

তিনি আইপিএল দল ও অস্ট্রেলিয়ার কোচ হিসেবে শারজাহ পরিস্থিতিও অধ্যয়ন করেছেন। সেই অভিজ্ঞতার কথা বলতে গিয়ে শ্রীরাম বলছিলেন, ‘আমরা কী ধরনের খেলা খেলতে চাই সে সম্পর্কে আমাদের পরিষ্কার ধারণা আছে। শারজায় এর আগে অনেকবার খেলেছি, আমরা জানি সেখানে কী আশা করতে হবে। আর শারজায় যেহেতু অনুশীলন ছিল না, তাই ভালোই হয়েছে। সেখানকার অনুশীলন ব্যবস্থা খুব একটা সুবিধাজনক নয়। এখানে দারুণ আয়োজন। ফলে আমরা খুশি।

শারজাহতে কী ধরনের ক্রিকেট খেলা হবে, তার ছক ইতিমধ্যেই তৈরি হয়েছে। শ্রীরাম বলছিলেন, ‘এটা আমাদের ভূমিকা সম্পর্কে পরিষ্কার হওয়া সম্পর্কে। আমাদের প্রচেষ্টা হবে সবার সাথে যোগাযোগ করা এবং সবার কাছ থেকে আমরা কী চাই সে সম্পর্কে পরিষ্কার হওয়া। খেলোয়াড়দের তাদের ভূমিকা স্পষ্ট বোঝার আছে. সেখানে যাওয়ার পর আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করব এবং হয়তো সঠিক সিদ্ধান্ত নেব।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

শ্রীরাম ও মাহমুদ শারজাহ সফরে ঝাটিকা অবস্থা দেখতে

আপডেট সময় ০৩:১৩:০০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ অগাস্ট ২০২২

সংবাদ সম্মেলনের পর শ্রীধরন শ্রীরাম তড়িঘড়ি করে চলে যান। ততক্ষণে দুবাইয়ের আইসিসি একাডেমি মাঠে অনুশীলন শুরু করেছেন বাংলাদেশ দলের পাঁচ-ছয়জন ক্রিকেটার।

ম্যাচের আগের দিন ঐচ্ছিক অনুশীলনের কারণে আজ মাঠে নামেনি সব দল। কিন্তু শ্রীধরন শ্রীরামের দৌড় দেখে মনে হয়, দলের টেকনিক্যাল কনসালট্যান্ট যে অনুশীলনে এসেছেন তাদের যোগ দিতে এত ব্যস্ত।

শ্রীরামের বাগদানের ভিন্ন কারণ পরে প্রকাশ্যে আসে। এশিয়া কাপে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচের ভেন্যু শারজাহ যাবেন তিনি। তার সঙ্গী বাংলাদেশ দলের টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ। শারজার অবস্থা নিজ চোখে দেখতে আসবেন দুজনেই। আগামীকাল শারজার ছোট বাউন্ডারি মাঠে আফগানিস্তানের বিপক্ষে এবারের এশিয়া কাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।

প্রায় এক সপ্তাহের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে পৌঁছেছে বাংলাদেশ দল। এ পর্যন্ত তিনটি অনুশীলন সেশন হয়েছে, তিনটিই দুবাইয়ে। এখন পর্যন্ত শারজায় একদিনের জন্যও অনুশীলন করেনি বাংলাদেশ দল। বছরের এই সময়ে সেখানে কী অবস্থা হবে তা বোঝার জন্য শ্রীরাম ও মাহমুদের আকস্মিক সফর।

শারজায় গাড়ি ধরার আগে সাংবাদিক সম্মেলনে সেখানকার পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্নের সম্মুখীন হন শ্রীরাম। খেলোয়াড় হিসেবে শারজার অভিজ্ঞতা রয়েছে তার।

তিনি আইপিএল দল ও অস্ট্রেলিয়ার কোচ হিসেবে শারজাহ পরিস্থিতিও অধ্যয়ন করেছেন। সেই অভিজ্ঞতার কথা বলতে গিয়ে শ্রীরাম বলছিলেন, ‘আমরা কী ধরনের খেলা খেলতে চাই সে সম্পর্কে আমাদের পরিষ্কার ধারণা আছে। শারজায় এর আগে অনেকবার খেলেছি, আমরা জানি সেখানে কী আশা করতে হবে। আর শারজায় যেহেতু অনুশীলন ছিল না, তাই ভালোই হয়েছে। সেখানকার অনুশীলন ব্যবস্থা খুব একটা সুবিধাজনক নয়। এখানে দারুণ আয়োজন। ফলে আমরা খুশি।

শারজাহতে কী ধরনের ক্রিকেট খেলা হবে, তার ছক ইতিমধ্যেই তৈরি হয়েছে। শ্রীরাম বলছিলেন, ‘এটা আমাদের ভূমিকা সম্পর্কে পরিষ্কার হওয়া সম্পর্কে। আমাদের প্রচেষ্টা হবে সবার সাথে যোগাযোগ করা এবং সবার কাছ থেকে আমরা কী চাই সে সম্পর্কে পরিষ্কার হওয়া। খেলোয়াড়দের তাদের ভূমিকা স্পষ্ট বোঝার আছে. সেখানে যাওয়ার পর আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করব এবং হয়তো সঠিক সিদ্ধান্ত নেব।