০১:১০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দুই দিনের সাপ্তাহিক ছুটি এখন স্থায়ী

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১০:০৮:২১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • / ৭৮৬ বার পড়া হয়েছে

bdopennews

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ের লক্ষ্যে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন করা হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দুই দিনের এই সাপ্তাহিক ছুটি এখন স্থায়ী। এমনটাই জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

সোমবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী সপ্তাহান্তে এসব কথা বলেন।

দীপু মনি বলেন, নতুন কারিকুলামে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন করা হয়েছে। আগামী বছরের জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। সামনে আনা হয়েছে। এখন থেকে হবে। কারণ শিক্ষকরা অন্যান্য পেশার তুলনায় বছরে ৫২ দিন বেশি কাজ করেন। শিক্ষকদের কিছু সময়ের প্রয়োজন। শিক্ষার্থীদেরও কিছু সময় প্রয়োজন।

দীপু মনি আরও বলেন, সারা বিশ্ব বলছে, সব গবেষণা বলছে সপ্তাহে দুই দিন ছুটি শেখার সহায়ক। শিক্ষাদানের জন্যও সহায়ক।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ের জন্য 22 আগস্ট সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত অফিসের সময়সূচি এগিয়ে আনা হয়। এছাড়া সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক দুই দিন ছুটি দিয়েছে সরকার।

আরও পড়ুন

 আগে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কেউ কেউ সপ্তাহে দুই দিন ছুটি রাখতেন। কিন্তু সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সাপ্তাহিক ছুটি ছিল মাত্র একদিন। তাই দেশের সরকারি স্কুল-কলেজে সপ্তাহে মাত্র একদিন ছুটি ছিল। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ক্ষমতা বাঁচাতে এই ছুটি দুই দিন করা হয়েছে, যা এখন স্থায়ী।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দুই দিনের সাপ্তাহিক ছুটি এখন স্থায়ী

আপডেট সময় ১০:০৮:২১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ের লক্ষ্যে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন করা হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দুই দিনের এই সাপ্তাহিক ছুটি এখন স্থায়ী। এমনটাই জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

সোমবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী সপ্তাহান্তে এসব কথা বলেন।

দীপু মনি বলেন, নতুন কারিকুলামে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন করা হয়েছে। আগামী বছরের জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। সামনে আনা হয়েছে। এখন থেকে হবে। কারণ শিক্ষকরা অন্যান্য পেশার তুলনায় বছরে ৫২ দিন বেশি কাজ করেন। শিক্ষকদের কিছু সময়ের প্রয়োজন। শিক্ষার্থীদেরও কিছু সময় প্রয়োজন।

দীপু মনি আরও বলেন, সারা বিশ্ব বলছে, সব গবেষণা বলছে সপ্তাহে দুই দিন ছুটি শেখার সহায়ক। শিক্ষাদানের জন্যও সহায়ক।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ের জন্য 22 আগস্ট সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত অফিসের সময়সূচি এগিয়ে আনা হয়। এছাড়া সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক দুই দিন ছুটি দিয়েছে সরকার।

আরও পড়ুন

 আগে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কেউ কেউ সপ্তাহে দুই দিন ছুটি রাখতেন। কিন্তু সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সাপ্তাহিক ছুটি ছিল মাত্র একদিন। তাই দেশের সরকারি স্কুল-কলেজে সপ্তাহে মাত্র একদিন ছুটি ছিল। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ক্ষমতা বাঁচাতে এই ছুটি দুই দিন করা হয়েছে, যা এখন স্থায়ী।