০১:১৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

রোহিঙ্গাদের যে নিতে চায়, বেশি নেবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১০:০২:২৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৮ অগাস্ট ২০২২
  • / ২৪৪ বার পড়া হয়েছে

bdopennews

যুক্তরাষ্ট্রসহ যেসব দেশ রোহিঙ্গাদের গ্রহণে আগ্রহ দেখিয়েছে তাদের আরও রোহিঙ্গা গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। মন্ত্রী বলেন, এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কাজ করছে।

রোববার সচিবালয়ে বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিকদের সমন্বয় ব্যবস্থাপনা ও আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক জাতীয় কমিটির পঞ্চম সভা শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, অনেক দেশ রোহিঙ্গাদের গ্রহণে আগ্রহ দেখিয়েছে। এসব প্রস্তাব বিবেচনাধীন রয়েছে। তবে তারা কতজন রোহিঙ্গা নেবেন এবং কী শর্ত থাকবে তা এখনো জানা যায়নি।

বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিনা কারণে রক্তপাত দেখছি। আমি মাদক ব্যবসার দিকেও নজর রাখছি। মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে পুলিশের বিজিবির যৌথ অভিযান অব্যাহত থাকবে। প্রয়োজনে সেনাবাহিনী অভিযানে সহায়তা করবে। সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করা হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রায়ই আগুন দেওয়া হয়। অগ্নিনির্বাপণে সক্ষমতা বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে জন্মনিয়ন্ত্রণের জন্য একটি কর্মপরিকল্পনা তৈরি করা হচ্ছে বলেও জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও ইসলামিক ফাউন্ডেশন এ কাজ করছে। নাফ নদীতে চলাচলকারী ট্রলারে মাদক আসছে। মন্ত্রী বলেন, এটি নিয়ন্ত্রণে ট্রলার নিবন্ধনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের অপরাধ সংঘটন থেকে বিরত রাখার উপায় খোঁজা হচ্ছে।

আজকের বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সচিব, প্রতিমন্ত্রী ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সচিব, পুলিশের প্রতিনিধিসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

রোহিঙ্গাদের যে নিতে চায়, বেশি নেবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট সময় ১০:০২:২৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৮ অগাস্ট ২০২২

যুক্তরাষ্ট্রসহ যেসব দেশ রোহিঙ্গাদের গ্রহণে আগ্রহ দেখিয়েছে তাদের আরও রোহিঙ্গা গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। মন্ত্রী বলেন, এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কাজ করছে।

রোববার সচিবালয়ে বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিকদের সমন্বয় ব্যবস্থাপনা ও আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক জাতীয় কমিটির পঞ্চম সভা শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, অনেক দেশ রোহিঙ্গাদের গ্রহণে আগ্রহ দেখিয়েছে। এসব প্রস্তাব বিবেচনাধীন রয়েছে। তবে তারা কতজন রোহিঙ্গা নেবেন এবং কী শর্ত থাকবে তা এখনো জানা যায়নি।

বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিনা কারণে রক্তপাত দেখছি। আমি মাদক ব্যবসার দিকেও নজর রাখছি। মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে পুলিশের বিজিবির যৌথ অভিযান অব্যাহত থাকবে। প্রয়োজনে সেনাবাহিনী অভিযানে সহায়তা করবে। সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করা হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রায়ই আগুন দেওয়া হয়। অগ্নিনির্বাপণে সক্ষমতা বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে জন্মনিয়ন্ত্রণের জন্য একটি কর্মপরিকল্পনা তৈরি করা হচ্ছে বলেও জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও ইসলামিক ফাউন্ডেশন এ কাজ করছে। নাফ নদীতে চলাচলকারী ট্রলারে মাদক আসছে। মন্ত্রী বলেন, এটি নিয়ন্ত্রণে ট্রলার নিবন্ধনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের অপরাধ সংঘটন থেকে বিরত রাখার উপায় খোঁজা হচ্ছে।

আজকের বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সচিব, প্রতিমন্ত্রী ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সচিব, পুলিশের প্রতিনিধিসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।