০৯:০৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

বাসচাপায় নির্বাচন কর্মকর্তার স্ত্রীসহ দুইজন নিহত হয়েছেন

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৪:০৬:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • / ৩৪৯ বার পড়া হয়েছে

টাঙ্গাইলে বাসের ধাক্কায় সিএনজিচালিত অটোরিকশায় উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার স্ত্রীসহ দুই যাত্রী নিহত হয়েছেন। শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে টাঙ্গাইল শহরের বাইপাসের রাবনা এলাকায় ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত দুইজন হলেন- কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাখাওয়াত হোসেনের স্ত্রী নুসরাত জাহান হিমু (৩০) ও গোপালপুর উপজেলার চরচাটিলা মাদ্রাসার অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক সাইফুল ইসলাম (৫৫)। নুসরাতের স্বামী সাখাওয়াত হোসেনের বাড়ি টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার হরিপুর গ্রামে। নিহত সাইফুল গোপালপুর উপজেলার উত্তর বিলডোবা গ্রামের মৃত নাঈম আলী মন্ডলের ছেলে।

পুলিশ জানায়, শাশুড়ি ফরিদা বেগমকে ডাক্তার দেখানোর জন্য ঘাটাইল থেকে অটোরিকশাযোগে টাঙ্গাইল শহরে যাচ্ছিলেন নুসরাত। আর শিক্ষক সাইফুল ইসলামও ডাক্তার দেখাতে টাঙ্গাইল যাচ্ছিলেন। তাদের বহনকারী অটোরিকশাটি টাঙ্গাইল শহরের বাইপাসের রাবনা এলাকায় পৌঁছালে উত্তরবঙ্গগামী একটি বাসের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই সাইফুল মারা যান। আহত নুসরাত ও তার শাশুড়ি ফরিদা এবং ফরিদার বোনের স্বামী পথিককে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে নুসরাতের মৃত্যু হয়। দুইজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. নবীন জানান, ঢাকা থেকে গাইবান্ধাগামী একটি যাত্রীবাহী বাস চাপা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। বাস ও অটোরিকশা জব্দ করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

বাসচাপায় নির্বাচন কর্মকর্তার স্ত্রীসহ দুইজন নিহত হয়েছেন

আপডেট সময় ০৪:০৬:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০২২

টাঙ্গাইলে বাসের ধাক্কায় সিএনজিচালিত অটোরিকশায় উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার স্ত্রীসহ দুই যাত্রী নিহত হয়েছেন। শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে টাঙ্গাইল শহরের বাইপাসের রাবনা এলাকায় ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত দুইজন হলেন- কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাখাওয়াত হোসেনের স্ত্রী নুসরাত জাহান হিমু (৩০) ও গোপালপুর উপজেলার চরচাটিলা মাদ্রাসার অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক সাইফুল ইসলাম (৫৫)। নুসরাতের স্বামী সাখাওয়াত হোসেনের বাড়ি টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার হরিপুর গ্রামে। নিহত সাইফুল গোপালপুর উপজেলার উত্তর বিলডোবা গ্রামের মৃত নাঈম আলী মন্ডলের ছেলে।

পুলিশ জানায়, শাশুড়ি ফরিদা বেগমকে ডাক্তার দেখানোর জন্য ঘাটাইল থেকে অটোরিকশাযোগে টাঙ্গাইল শহরে যাচ্ছিলেন নুসরাত। আর শিক্ষক সাইফুল ইসলামও ডাক্তার দেখাতে টাঙ্গাইল যাচ্ছিলেন। তাদের বহনকারী অটোরিকশাটি টাঙ্গাইল শহরের বাইপাসের রাবনা এলাকায় পৌঁছালে উত্তরবঙ্গগামী একটি বাসের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই সাইফুল মারা যান। আহত নুসরাত ও তার শাশুড়ি ফরিদা এবং ফরিদার বোনের স্বামী পথিককে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে নুসরাতের মৃত্যু হয়। দুইজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. নবীন জানান, ঢাকা থেকে গাইবান্ধাগামী একটি যাত্রীবাহী বাস চাপা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। বাস ও অটোরিকশা জব্দ করা হয়েছে।