১২:০৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

প্রশ্ন হল বিজেপির পাপের জন্য মানুষ কেন ভুগবে

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:৫৬:৫৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১২ জুন ২০২২
  • / ১২২৯ বার পড়া হয়েছে

bdopennews

হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছে ভারতের ক্ষমতাসীন দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)। পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য ঝাড়খন্ডে বিক্ষোভ সমাবেশে দুইজন নিহত হয়েছেন। রাজ্যে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। দেশটির রাজধানী দিল্লিতেও বিক্ষোভ চলছে। এদিকে বিজেপিকে প্রশ্ন তুলেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যখন এই ইস্যুতে গোটা দেশ উত্তাল তখন বিজেপির সমালোচনা করেছেন। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিযোগ করেছেন যে কিছু রাজনৈতিক দল দাঙ্গা ঘটাতে চাইছে। কিন্তু রাজ্য সরকার এটা সহ্য করবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন তিনি। এ সময় মমতা প্রশ্ন তোলেন, “বিজেপি পাপ করেছে, জনগণের কি ক্ষতি হবে?”

শুধু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই নন, বিজেপির দুই নেতার মানহানিকর মন্তব্যের প্রতিবাদ করেছেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীও। তিনি আরও উল্লেখ করেছেন যে বিজেপি এই বিষয়ে বিদ্বেষের নীতি অনুসরণ করছে।

বিরোধী দলগুলি বিপর্যস্ত প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করার আহ্বান জানিয়েছে, কিন্তু বিজেপি অবিলম্বে মন্তব্যের জন্য কল ফেরত দেয়নি। অন্যদিকে পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে এফআইআর নেওয়ায় দেশ-বিদেশে শুরু হয়েছে সমালোচনা ও প্রতিবাদের ঝড়। কংগ্রেসও আসামে তাদের নামে এফআইআর দায়ের করেছে।

উত্তরপ্রদেশে শান্তি বিঘ্নিত করার অভিযোগে ২২৮ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া এখনও গরম। জাতীয় সড়ক ও রেল অবরোধ চলছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা। গ্রেফতার করা হয়েছে বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার সহ বেশ কয়েকজন নেতাকে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

প্রশ্ন হল বিজেপির পাপের জন্য মানুষ কেন ভুগবে

আপডেট সময় ০৫:৫৬:৫৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১২ জুন ২০২২

হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছে ভারতের ক্ষমতাসীন দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)। পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য ঝাড়খন্ডে বিক্ষোভ সমাবেশে দুইজন নিহত হয়েছেন। রাজ্যে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। দেশটির রাজধানী দিল্লিতেও বিক্ষোভ চলছে। এদিকে বিজেপিকে প্রশ্ন তুলেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যখন এই ইস্যুতে গোটা দেশ উত্তাল তখন বিজেপির সমালোচনা করেছেন। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিযোগ করেছেন যে কিছু রাজনৈতিক দল দাঙ্গা ঘটাতে চাইছে। কিন্তু রাজ্য সরকার এটা সহ্য করবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন তিনি। এ সময় মমতা প্রশ্ন তোলেন, “বিজেপি পাপ করেছে, জনগণের কি ক্ষতি হবে?”

শুধু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই নন, বিজেপির দুই নেতার মানহানিকর মন্তব্যের প্রতিবাদ করেছেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীও। তিনি আরও উল্লেখ করেছেন যে বিজেপি এই বিষয়ে বিদ্বেষের নীতি অনুসরণ করছে।

বিরোধী দলগুলি বিপর্যস্ত প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করার আহ্বান জানিয়েছে, কিন্তু বিজেপি অবিলম্বে মন্তব্যের জন্য কল ফেরত দেয়নি। অন্যদিকে পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে এফআইআর নেওয়ায় দেশ-বিদেশে শুরু হয়েছে সমালোচনা ও প্রতিবাদের ঝড়। কংগ্রেসও আসামে তাদের নামে এফআইআর দায়ের করেছে।

উত্তরপ্রদেশে শান্তি বিঘ্নিত করার অভিযোগে ২২৮ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া এখনও গরম। জাতীয় সড়ক ও রেল অবরোধ চলছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা। গ্রেফতার করা হয়েছে বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার সহ বেশ কয়েকজন নেতাকে।