০৯:২১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

পাকিস্তানে ছয় সেনা কর্মকর্তাসহ হেলিকপ্টার নিখোঁজ

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৬:০৯:৩৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ অগাস্ট ২০২২
  • / ৭৫৪ বার পড়া হয়েছে

পাকিস্তানে ছয় সেনা কর্মকর্তাসহ হেলিকপ্টার নিখোঁজ

পাকিস্তানে ছয় সেনা সদস্যকে বহনকারী একটি হেলিকপ্টার নিখোঁজ হয়েছে। তাদের মধ্যে একজন জেনারেল ছিলেন। তারা পাকিস্তানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে সেনাবাহিনীর বন্যা ত্রাণ কার্যক্রম তদারকি করছিলেন।

আবহাওয়া খারাপ ছিল বলে জানা গেছে। সেনা কর্মকর্তাদের বহনকারী হেলিকপ্টারের সঙ্গে এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়।

সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বেলুচিস্তানের লাসবেলা এলাকায় সেনাবাহিনীর জওয়ানরা যে বন্যা ত্রাণ নামিয়েছে তা দেখতে অফিসাররা একটি হেলিকপ্টারে সেখানে গিয়েছিলেন। তবে হেলিকপ্টারটির কী হয়েছে তা বিবৃতিতে বলা হয়নি।

গোয়েন্দা সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছে যে হেলিকপ্টারটিতে কর্পস কমান্ডার সরফরাজ আলী, পাকিস্তান কোস্ট গার্ডের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার আমজাদ হানিফ এবং দুই গোয়েন্দা কর্মকর্তা ছিলেন।

পুলিশ জানায়, উদ্ধার ও ত্রাণ কাজ শুরু করার পর হেলিকপ্টারটি দেখা যায়নি।

খারাপ আবহাওয়ার কারণে উদ্ধার তৎপরতা স্থগিত করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে ফের শুরু হয়।

পাকিস্তানে ভারী বর্ষণের পর প্রবল বন্যা। উদ্ধার ও ত্রাণ কাজে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। বেলুচিস্তানে বহু মানুষ মারা গেছে এবং বহু বাড়িঘর ভেসে গেছে।

প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরীফ বলেছেন, পরিস্থিতি খুবই নাজুক। সোমবার তিনি ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন। শরীফ বলেন, পুরো দেশ বন্যা দুর্গত ও তাদের সাহায্যকারীদের নিরাপত্তার জন্য প্রার্থনা করছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, আগামী দিনে পাকিস্তানে আরও বৃষ্টি হবে। ফলে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে। সূত্র: ডয়চে ভেলে, এপি, এএফপি, রয়টার্স, ট্রিবিউন পিকে

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

পাকিস্তানে ছয় সেনা কর্মকর্তাসহ হেলিকপ্টার নিখোঁজ

আপডেট সময় ০৬:০৯:৩৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ অগাস্ট ২০২২

পাকিস্তানে ছয় সেনা সদস্যকে বহনকারী একটি হেলিকপ্টার নিখোঁজ হয়েছে। তাদের মধ্যে একজন জেনারেল ছিলেন। তারা পাকিস্তানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে সেনাবাহিনীর বন্যা ত্রাণ কার্যক্রম তদারকি করছিলেন।

আবহাওয়া খারাপ ছিল বলে জানা গেছে। সেনা কর্মকর্তাদের বহনকারী হেলিকপ্টারের সঙ্গে এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়।

সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বেলুচিস্তানের লাসবেলা এলাকায় সেনাবাহিনীর জওয়ানরা যে বন্যা ত্রাণ নামিয়েছে তা দেখতে অফিসাররা একটি হেলিকপ্টারে সেখানে গিয়েছিলেন। তবে হেলিকপ্টারটির কী হয়েছে তা বিবৃতিতে বলা হয়নি।

গোয়েন্দা সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছে যে হেলিকপ্টারটিতে কর্পস কমান্ডার সরফরাজ আলী, পাকিস্তান কোস্ট গার্ডের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার আমজাদ হানিফ এবং দুই গোয়েন্দা কর্মকর্তা ছিলেন।

পুলিশ জানায়, উদ্ধার ও ত্রাণ কাজ শুরু করার পর হেলিকপ্টারটি দেখা যায়নি।

খারাপ আবহাওয়ার কারণে উদ্ধার তৎপরতা স্থগিত করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে ফের শুরু হয়।

পাকিস্তানে ভারী বর্ষণের পর প্রবল বন্যা। উদ্ধার ও ত্রাণ কাজে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। বেলুচিস্তানে বহু মানুষ মারা গেছে এবং বহু বাড়িঘর ভেসে গেছে।

প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরীফ বলেছেন, পরিস্থিতি খুবই নাজুক। সোমবার তিনি ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন। শরীফ বলেন, পুরো দেশ বন্যা দুর্গত ও তাদের সাহায্যকারীদের নিরাপত্তার জন্য প্রার্থনা করছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, আগামী দিনে পাকিস্তানে আরও বৃষ্টি হবে। ফলে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে। সূত্র: ডয়চে ভেলে, এপি, এএফপি, রয়টার্স, ট্রিবিউন পিকে