০১:০১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

নড়াইল থেকে যেই মনোনয়ন পাবেন তার সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করবেন বলে আশাবাদী মাশরাফি

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৬:১৮:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ জুলাই ২০২২
  • / ৭৯৪ বার পড়া হয়েছে

bdopennews

নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেন, সামনে নির্বাচন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর চিন্তা করা উচিত নয়। নড়াইল থেকে যিনিই মনোনয়ন পাবেন, আসুন আমরা সবাই এক হয়ে তার জন্য কাজ করি। এখান থেকেই সেই নেতৃত্ব গড়ে তুলতে হবে।’ বৃহস্পতিবার বিকেলে নড়াইল জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

বেলা একটার দিকে নগরীর সুলতান মঞ্চে সম্মেলন শুরু হয়। শেষ হয় বিকেল চারটায়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। সভাপতিত্ব করেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি চঞ্চল শাহরিয়ার। বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান, সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য ও সহ-সভাপতি এম সাজ্জাদ হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হুসেইন আহমেদ সোহান, নড়াইল-১ আসনের সংসদ সদস্য কবিরুল হক, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুবাস চন্দ্র বসু প্রমুখ। অন্যান্য. সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন খান প্রমুখ।

মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেন, আমি নড়াইল জেলা ছাত্রলীগের ভাই-বোনদের একটি বার্তা দিতে চাই, আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য কাজ করব। আমাদের একটাই লক্ষ্য থাকবে তিনি ক্ষমতায় থাকলে দেশ ভালো থেকো, দেশ এগিয়ে যাবে, দেশের উন্নয়ন হবে।প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।তাই আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক এই অধিনায়ক বলেন, ‘অবশেষে একটা কথা বলতে চাই, আমার শরীর ভালো লাগছে না। হামলার সময় আমরা গত কয়েকদিন ধরে সেখানে ছিলাম। প্রশাসন প্রশাসনের মতো কাজ করবে। কিন্তু আমরা দিঘলিয়ায় আছি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ভ্যানগার্ড হিসেবে কাজ করছি। দিঘলিয়ার জন্য যা করা দরকার, আমরা তা করব।

প্রধান অতিথি মাহবুব উল আলম হানিফ বক্তব্য শুরু করলে শুরু হয় বৃষ্টি। তাই তিনি বক্তৃতা না দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়ে শেষ করলেন। সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শেষে বিকেলে নড়াইল সার্কিট হাউসে ছাত্রলীগের কাউন্সিলর ও প্রার্থীদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন দ্বিতীয় অধিবেশনের কমিটি গঠনের জন্য। নড়াইল জেলা ছাত্রলীগের সর্বশেষ সম্মেলন ২০১৯ সালের ৬ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে লোহাগড়ের দিঘলিয়া সাহাপাড়ায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন মাহবুব উল আলম হানিফ। ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের সাথে কথা বলুন। এ সময় জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সেখানে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘটনাটি শুনে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। আমরা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। আমাদের লক্ষ্য একটাই অপরাধীদের এমনভাবে শাস্তি দেওয়া যাতে ভবিষ্যতে কেউ আইন নিজের হাতে তুলে না নেয়। তিনি আরও বলেন, ফেসবুকে উস্কানিমূলক পোস্ট দিয়ে সাম্প্রদায়িক সংঘাত সৃষ্টি করা হচ্ছে। আমরা সেই রামুর ঘটনা থেকে দেখি, নাসিরনগরের ঘটনা থেকে সব ঘটনায় একই লিঙ্ক পাওয়া যায়। এসব ঘটনা পরিকল্পিত।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

নড়াইল থেকে যেই মনোনয়ন পাবেন তার সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করবেন বলে আশাবাদী মাশরাফি

আপডেট সময় ০৬:১৮:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ জুলাই ২০২২

নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেন, সামনে নির্বাচন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর চিন্তা করা উচিত নয়। নড়াইল থেকে যিনিই মনোনয়ন পাবেন, আসুন আমরা সবাই এক হয়ে তার জন্য কাজ করি। এখান থেকেই সেই নেতৃত্ব গড়ে তুলতে হবে।’ বৃহস্পতিবার বিকেলে নড়াইল জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

বেলা একটার দিকে নগরীর সুলতান মঞ্চে সম্মেলন শুরু হয়। শেষ হয় বিকেল চারটায়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। সভাপতিত্ব করেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি চঞ্চল শাহরিয়ার। বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান, সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য ও সহ-সভাপতি এম সাজ্জাদ হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হুসেইন আহমেদ সোহান, নড়াইল-১ আসনের সংসদ সদস্য কবিরুল হক, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুবাস চন্দ্র বসু প্রমুখ। অন্যান্য. সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন খান প্রমুখ।

মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেন, আমি নড়াইল জেলা ছাত্রলীগের ভাই-বোনদের একটি বার্তা দিতে চাই, আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য কাজ করব। আমাদের একটাই লক্ষ্য থাকবে তিনি ক্ষমতায় থাকলে দেশ ভালো থেকো, দেশ এগিয়ে যাবে, দেশের উন্নয়ন হবে।প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।তাই আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক এই অধিনায়ক বলেন, ‘অবশেষে একটা কথা বলতে চাই, আমার শরীর ভালো লাগছে না। হামলার সময় আমরা গত কয়েকদিন ধরে সেখানে ছিলাম। প্রশাসন প্রশাসনের মতো কাজ করবে। কিন্তু আমরা দিঘলিয়ায় আছি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ভ্যানগার্ড হিসেবে কাজ করছি। দিঘলিয়ার জন্য যা করা দরকার, আমরা তা করব।

প্রধান অতিথি মাহবুব উল আলম হানিফ বক্তব্য শুরু করলে শুরু হয় বৃষ্টি। তাই তিনি বক্তৃতা না দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়ে শেষ করলেন। সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শেষে বিকেলে নড়াইল সার্কিট হাউসে ছাত্রলীগের কাউন্সিলর ও প্রার্থীদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন দ্বিতীয় অধিবেশনের কমিটি গঠনের জন্য। নড়াইল জেলা ছাত্রলীগের সর্বশেষ সম্মেলন ২০১৯ সালের ৬ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে লোহাগড়ের দিঘলিয়া সাহাপাড়ায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন মাহবুব উল আলম হানিফ। ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের সাথে কথা বলুন। এ সময় জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সেখানে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘটনাটি শুনে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। আমরা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। আমাদের লক্ষ্য একটাই অপরাধীদের এমনভাবে শাস্তি দেওয়া যাতে ভবিষ্যতে কেউ আইন নিজের হাতে তুলে না নেয়। তিনি আরও বলেন, ফেসবুকে উস্কানিমূলক পোস্ট দিয়ে সাম্প্রদায়িক সংঘাত সৃষ্টি করা হচ্ছে। আমরা সেই রামুর ঘটনা থেকে দেখি, নাসিরনগরের ঘটনা থেকে সব ঘটনায় একই লিঙ্ক পাওয়া যায়। এসব ঘটনা পরিকল্পিত।