০৯:৩৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪

দেশে হিন্দুদের জীবনযাত্রা কঠিন হচ্ছে: হিন্দু মহাজোট

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০২:৫০:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ জুলাই ২০২২
  • / ১৩৪০ বার পড়া হয়েছে

bdopennews

বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট বলেছে, প্রতিদিনই দেশের কোথাও না কোথাও হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর নির্যাতন চালানো হচ্ছে। ঘটনার ধারাবাহিকতা প্রমাণ করে যে এদেশে হিন্দুদের জীবনযাত্রা দিন দিন কঠিনতর হচ্ছে।

শনিবার রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন। নড়াইলে কলেজ অধ্যক্ষের গলায় জুতার ফিতা, সাভারে কলেজ শিক্ষক হত্যা, হিন্দুদের বিরুদ্ধে মিথ্যা নিরাপত্তা আইনে মামলা, হামলা, জমি দখলের প্রতিবাদে গত ছয় মাসে হিন্দু নির্যাতনের প্রতিবেদন প্রকাশ উপলক্ষে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। , মন্দির ও মূর্তি ভাংচুর এবং অপরাধীদের শাস্তি।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জোটের মহাসচিব গোবিন্দ চন্দ্র প্রামানিক।

তিনি বলেন, পুলিশ প্রশাসনের উপস্থিতিতে শিক্ষকদের হয়রানি, লাঞ্ছনাসহ নানাভাবে মর্যাদা ক্ষুন্ন করা হচ্ছে। ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, নড়াইল সাভারসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে একের পর এক ঘটনা ঘটছে।

হিন্দু মহাজোটের অভিযোগ, স্বাধীনতার ৫০ বছর পরও কোনো সরকারই হিন্দুদের দাবি মেনে নেয়নি। বাজেটে হিন্দুদের বঞ্চিত করা হয়েছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে জেলে হিন্দু শিশুদের ফাঁসি দেওয়া হচ্ছে।

হিন্দু মহাজোটের নেতারা অভিযোগ করেন, হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর নির্যাতনের বিভিন্ন ঘটনায় ক্ষমতাসীন দল সক্রিয়ভাবে জড়িত এবং প্রকৃত দোষীদের দোষারোপ না করে ঘটনাগুলো ধামাচাপা দেওয়া হয়েছে।

হিন্দু মহাজোট বলেছে, সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতনের ঘটনা ঘটলেও জাতীয় সংসদ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। তারা আরও বলেন, রাজনৈতিক দলগুলো ফুটবলের মতো হিন্দু সম্প্রদায়কে ব্যবহার করছে। আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে হিন্দু শিক্ষকদের নির্যাতনের কথা উল্লেখ করে সংগঠনটি বলেছে, সরকার কোনো ঘটনার বিচার করেনি।

হিন্দু মহাজোটের মহাসচিব বলেন, দেশে ছাত্রলীগ, যুবলীগ, আওয়ামী লীগ বা অন্য কোনো ইসলামী দলে জঙ্গি, মৌলবাদী মানসিকতা আমরা দেখি না। এই উগ্র মানসিকতা পরিহার করতে হবে। আপনাকে শুধু ধর্মনিরপেক্ষতার কথা বলতে হবে না। ‘

হিন্দু মহাজোটের কার্যকরী সভাপতি দীনবন্ধু রায় বলেন, নড়াইলের ঘটনা সমগ্র জাতির জন্য অপমানজনক। যতবারই হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা হয়েছে, আশ্বাস দেওয়া হচ্ছে কিন্তু বিচার হচ্ছে না। এসব নির্যাতনের বিরুদ্ধে এখন প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

হিন্দু মহাজোট জাতীয় সংসদে হিন্দু সম্প্রদায়ের জন্য 60 টি সংরক্ষিত আসন সহ একটি পৃথক সংখ্যালঘু মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন মহাজোটের সিনিয়র সহ-সভাপতি প্রদীপ কুমার পাল, প্রধান সমন্বয়কারী বিজয় কৃষ্ণ ভট্টাচার্য প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

দেশে হিন্দুদের জীবনযাত্রা কঠিন হচ্ছে: হিন্দু মহাজোট

আপডেট সময় ০২:৫০:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ জুলাই ২০২২

বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট বলেছে, প্রতিদিনই দেশের কোথাও না কোথাও হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর নির্যাতন চালানো হচ্ছে। ঘটনার ধারাবাহিকতা প্রমাণ করে যে এদেশে হিন্দুদের জীবনযাত্রা দিন দিন কঠিনতর হচ্ছে।

শনিবার রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন। নড়াইলে কলেজ অধ্যক্ষের গলায় জুতার ফিতা, সাভারে কলেজ শিক্ষক হত্যা, হিন্দুদের বিরুদ্ধে মিথ্যা নিরাপত্তা আইনে মামলা, হামলা, জমি দখলের প্রতিবাদে গত ছয় মাসে হিন্দু নির্যাতনের প্রতিবেদন প্রকাশ উপলক্ষে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। , মন্দির ও মূর্তি ভাংচুর এবং অপরাধীদের শাস্তি।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জোটের মহাসচিব গোবিন্দ চন্দ্র প্রামানিক।

তিনি বলেন, পুলিশ প্রশাসনের উপস্থিতিতে শিক্ষকদের হয়রানি, লাঞ্ছনাসহ নানাভাবে মর্যাদা ক্ষুন্ন করা হচ্ছে। ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, নড়াইল সাভারসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে একের পর এক ঘটনা ঘটছে।

হিন্দু মহাজোটের অভিযোগ, স্বাধীনতার ৫০ বছর পরও কোনো সরকারই হিন্দুদের দাবি মেনে নেয়নি। বাজেটে হিন্দুদের বঞ্চিত করা হয়েছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে জেলে হিন্দু শিশুদের ফাঁসি দেওয়া হচ্ছে।

হিন্দু মহাজোটের নেতারা অভিযোগ করেন, হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর নির্যাতনের বিভিন্ন ঘটনায় ক্ষমতাসীন দল সক্রিয়ভাবে জড়িত এবং প্রকৃত দোষীদের দোষারোপ না করে ঘটনাগুলো ধামাচাপা দেওয়া হয়েছে।

হিন্দু মহাজোট বলেছে, সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতনের ঘটনা ঘটলেও জাতীয় সংসদ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। তারা আরও বলেন, রাজনৈতিক দলগুলো ফুটবলের মতো হিন্দু সম্প্রদায়কে ব্যবহার করছে। আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে হিন্দু শিক্ষকদের নির্যাতনের কথা উল্লেখ করে সংগঠনটি বলেছে, সরকার কোনো ঘটনার বিচার করেনি।

হিন্দু মহাজোটের মহাসচিব বলেন, দেশে ছাত্রলীগ, যুবলীগ, আওয়ামী লীগ বা অন্য কোনো ইসলামী দলে জঙ্গি, মৌলবাদী মানসিকতা আমরা দেখি না। এই উগ্র মানসিকতা পরিহার করতে হবে। আপনাকে শুধু ধর্মনিরপেক্ষতার কথা বলতে হবে না। ‘

হিন্দু মহাজোটের কার্যকরী সভাপতি দীনবন্ধু রায় বলেন, নড়াইলের ঘটনা সমগ্র জাতির জন্য অপমানজনক। যতবারই হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা হয়েছে, আশ্বাস দেওয়া হচ্ছে কিন্তু বিচার হচ্ছে না। এসব নির্যাতনের বিরুদ্ধে এখন প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

হিন্দু মহাজোট জাতীয় সংসদে হিন্দু সম্প্রদায়ের জন্য 60 টি সংরক্ষিত আসন সহ একটি পৃথক সংখ্যালঘু মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন মহাজোটের সিনিয়র সহ-সভাপতি প্রদীপ কুমার পাল, প্রধান সমন্বয়কারী বিজয় কৃষ্ণ ভট্টাচার্য প্রমুখ।