১১:২৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

দারিয়া হত্যার জন্য ইউক্রেনকে দায়ী করেছে রাশিয়া

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:৩৭:১১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ অগাস্ট ২০২২
  • / ১০৬৯ বার পড়া হয়েছে

bdopennews

রাশিয়ান দার্শনিক আলেকজান্ডার দাগিনের মেয়ে দারিয়া দাগিনাকে হত্যার জন্য ইউক্রেনকে দায়ী করেছে রাশিয়া। খবর রয়টার্স।

রাশিয়ার ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিস (এফএসবি) গতকাল দাবি করেছে যে ইউক্রেনের গোয়েন্দা সংস্থা এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত ছিল। রুশ বার্তা সংস্থা এফএসবি-র এ তথ্য জানিয়েছে।

গত শনিবার রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর কাছে সন্দেহভাজন গাড়ি বোমা হামলায় সাংবাদিক ও রাজনৈতিক ভাষ্যকার দারিয়া (২৯) নিহত হয়েছেন। তার বাবা আলেকজান্ডার (৬০) দেশটির প্রেসিডেন্ট পুতিনের ‘মস্তিষ্ক’ হিসেবে পরিচিত। অনেকে তাকে পুতিনের ‘ধর্মতাত্ত্বিক গুরু’ বলেও ডাকেন।

দারিয়া হত্যার পরপরই রুশপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা ডেনিস পুশিলিন ইউক্রেনকে দায়ী করেন। তবে তিনি তার দাবির পক্ষে কোনো প্রমাণ দেননি।

ইউক্রেন দারিয়া হত্যায় জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছে। এফএসবি-র মতে, দারিয়াকে হত্যার জন্য হামলাটি ইউক্রেনের এক মহিলা দ্বারা পরিচালিত হয়েছিল। তিনি 1979 সালে জন্মগ্রহণ করেন।

FSB-এর দাবির সত্যতা যাচাই করতে পারেনি রয়টার্স।

আলেকজান্ডার এবং দারিয়া গত শনিবার মস্কোর কাছে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন। অনুষ্ঠান থেকে একই গাড়িতে একসঙ্গে বাড়ি ফেরার কথা ছিল বাবা ও মেয়ের। কিন্তু শেষ মুহূর্তে আলেকজান্ডার আলাদাভাবে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। বাবার গাড়িতে করে বাড়ি ফিরছিলেন দারিয়া। পথে গাড়িতে বিস্ফোরণ ঘটে।

রাশিয়ান তদন্তকারীরা বলছেন, চালকের পাশে গাড়ির নিচে একটি বিস্ফোরক ‘ডিভাইস’ রাখা হয়েছিল। ডিভাইসটি রিমোট কন্ট্রোল দ্বারা বিস্ফোরিত হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

দারিয়া হত্যার জন্য ইউক্রেনকে দায়ী করেছে রাশিয়া

আপডেট সময় ০৫:৩৭:১১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ অগাস্ট ২০২২

রাশিয়ান দার্শনিক আলেকজান্ডার দাগিনের মেয়ে দারিয়া দাগিনাকে হত্যার জন্য ইউক্রেনকে দায়ী করেছে রাশিয়া। খবর রয়টার্স।

রাশিয়ার ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিস (এফএসবি) গতকাল দাবি করেছে যে ইউক্রেনের গোয়েন্দা সংস্থা এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত ছিল। রুশ বার্তা সংস্থা এফএসবি-র এ তথ্য জানিয়েছে।

গত শনিবার রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর কাছে সন্দেহভাজন গাড়ি বোমা হামলায় সাংবাদিক ও রাজনৈতিক ভাষ্যকার দারিয়া (২৯) নিহত হয়েছেন। তার বাবা আলেকজান্ডার (৬০) দেশটির প্রেসিডেন্ট পুতিনের ‘মস্তিষ্ক’ হিসেবে পরিচিত। অনেকে তাকে পুতিনের ‘ধর্মতাত্ত্বিক গুরু’ বলেও ডাকেন।

দারিয়া হত্যার পরপরই রুশপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা ডেনিস পুশিলিন ইউক্রেনকে দায়ী করেন। তবে তিনি তার দাবির পক্ষে কোনো প্রমাণ দেননি।

ইউক্রেন দারিয়া হত্যায় জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছে। এফএসবি-র মতে, দারিয়াকে হত্যার জন্য হামলাটি ইউক্রেনের এক মহিলা দ্বারা পরিচালিত হয়েছিল। তিনি 1979 সালে জন্মগ্রহণ করেন।

FSB-এর দাবির সত্যতা যাচাই করতে পারেনি রয়টার্স।

আলেকজান্ডার এবং দারিয়া গত শনিবার মস্কোর কাছে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন। অনুষ্ঠান থেকে একই গাড়িতে একসঙ্গে বাড়ি ফেরার কথা ছিল বাবা ও মেয়ের। কিন্তু শেষ মুহূর্তে আলেকজান্ডার আলাদাভাবে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। বাবার গাড়িতে করে বাড়ি ফিরছিলেন দারিয়া। পথে গাড়িতে বিস্ফোরণ ঘটে।

রাশিয়ান তদন্তকারীরা বলছেন, চালকের পাশে গাড়ির নিচে একটি বিস্ফোরক ‘ডিভাইস’ রাখা হয়েছিল। ডিভাইসটি রিমোট কন্ট্রোল দ্বারা বিস্ফোরিত হয়।