০৯:০২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

জেলেনস্কি রাশিয়ান সতর্কবার্তায় কর্ণপাত করেননি: বিডেন

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৩:৩৮:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ জুন ২০২২
  • / ১১৬৪ বার পড়া হয়েছে

bdopennews

আক্রমণ শুরুর অনেক আগেই রাশিয়া ইউক্রেনে তাদের সামরিক উপস্থিতি বাড়াচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র বারবার বলেছে, ইউক্রেনে হামলার জন্য মস্কো এটা করছে। এমনকি ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিকেও সতর্ক করা হয়েছিল। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বিডেন বলেছেন জেলেনস্কি সতর্কবার্তায় কর্ণপাত করেননি। খবর এএফপি

শুক্রবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, “আমি জানি, অনেক লোক ভেবেছিল যে আমি বাড়াবাড়ি করছি। তবে, আমি জানতাম যে আমার সতর্কবার্তাকে সমর্থন করার মতো তথ্য আমার কাছে আছে। যাইহোক, জেলেনস্কি এটি শুনতে না চাইলে অনেকেই তা এড়িয়ে গেছেন।

রাশিয়া 24 ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করে। এর আগে দেশটির অনেক ইউরোপীয় মিত্র যুক্তরাষ্ট্রের সতর্কবার্তায় সন্দিহান ছিল। দেশগুলি এমনকি বিডেন প্রশাসনের সতর্কতার জন্য সমালোচনা করা বন্ধ করেনি।

বাইডেন যখন জেলেনস্কির বিরুদ্ধে অভিযোগ করছেন, জেলেনস্কি রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে জয়ী হওয়ার ব্যাপারে বেশ আত্মবিশ্বাসী। গতকাল একটি বৃটিশ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি বলেন, রাশিয়াকে হারিয়ে ইউক্রেন ব্রিটেন ও পোল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিজয় উদযাপন করবে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট বলেন, প্রথম থেকেই পোল্যান্ড ও ব্রিটেনের রাজনৈতিক নেতা ও জনগণ ইউক্রেনকে সমর্থন করে আসছে। কিয়েভকে অস্ত্র দেওয়ার আগে তাদের পোল্যান্ডে রাখা হয়েছিল। ব্রিটেন সাহায্যের প্রচারে মুখ্য ভূমিকা পালন করেছে। সে সময় ব্রিটেনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে জেলেনস্কি বলেছিলেন: “আমরা নিজেদের মধ্যে আস্থা তৈরি করেছি। আমাদের সেনাবাহিনী ব্রিটিশ সেনাবাহিনীকে বিশ্বাস করে। দুই দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে যোগাযোগ রয়েছে। আমরা একে অপরকে সাহায্য করি। আমরা ব্রিটিশদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ করেছি। বিভিন্ন স্তরের রাজনীতিবিদরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

জেলেনস্কি রাশিয়ান সতর্কবার্তায় কর্ণপাত করেননি: বিডেন

আপডেট সময় ০৩:৩৮:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ জুন ২০২২

আক্রমণ শুরুর অনেক আগেই রাশিয়া ইউক্রেনে তাদের সামরিক উপস্থিতি বাড়াচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র বারবার বলেছে, ইউক্রেনে হামলার জন্য মস্কো এটা করছে। এমনকি ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিকেও সতর্ক করা হয়েছিল। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বিডেন বলেছেন জেলেনস্কি সতর্কবার্তায় কর্ণপাত করেননি। খবর এএফপি

শুক্রবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, “আমি জানি, অনেক লোক ভেবেছিল যে আমি বাড়াবাড়ি করছি। তবে, আমি জানতাম যে আমার সতর্কবার্তাকে সমর্থন করার মতো তথ্য আমার কাছে আছে। যাইহোক, জেলেনস্কি এটি শুনতে না চাইলে অনেকেই তা এড়িয়ে গেছেন।

রাশিয়া 24 ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করে। এর আগে দেশটির অনেক ইউরোপীয় মিত্র যুক্তরাষ্ট্রের সতর্কবার্তায় সন্দিহান ছিল। দেশগুলি এমনকি বিডেন প্রশাসনের সতর্কতার জন্য সমালোচনা করা বন্ধ করেনি।

বাইডেন যখন জেলেনস্কির বিরুদ্ধে অভিযোগ করছেন, জেলেনস্কি রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে জয়ী হওয়ার ব্যাপারে বেশ আত্মবিশ্বাসী। গতকাল একটি বৃটিশ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি বলেন, রাশিয়াকে হারিয়ে ইউক্রেন ব্রিটেন ও পোল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিজয় উদযাপন করবে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট বলেন, প্রথম থেকেই পোল্যান্ড ও ব্রিটেনের রাজনৈতিক নেতা ও জনগণ ইউক্রেনকে সমর্থন করে আসছে। কিয়েভকে অস্ত্র দেওয়ার আগে তাদের পোল্যান্ডে রাখা হয়েছিল। ব্রিটেন সাহায্যের প্রচারে মুখ্য ভূমিকা পালন করেছে। সে সময় ব্রিটেনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে জেলেনস্কি বলেছিলেন: “আমরা নিজেদের মধ্যে আস্থা তৈরি করেছি। আমাদের সেনাবাহিনী ব্রিটিশ সেনাবাহিনীকে বিশ্বাস করে। দুই দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে যোগাযোগ রয়েছে। আমরা একে অপরকে সাহায্য করি। আমরা ব্রিটিশদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ করেছি। বিভিন্ন স্তরের রাজনীতিবিদরা।