১১:৪৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪

খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার দাবিতে ঢাকায় সমাবেশ করেছে বিএনপি

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৮:২৮:০৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১২ জুন ২০২২
  • / ৮৮৩ বার পড়া হয়েছে

bdopennews

রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সড়ক অবরোধ করে সমাবেশ করছে বিএনপি। দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির পাশাপাশি তার চিকিৎসা নিশ্চিত করতে বিদেশে পাঠানোর দাবিতে সমাবেশ করছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা।

রোববার সকাল ১০টা থেকে সমাবেশ করার পূর্ব ঘোষণা ছিল। তবে ঘোষিত সময়ের আগেই সমাবেশ শুরু হয়। সমাবেশের আয়োজন করে বিএনপির ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তর শাখা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল ৯টা থেকে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে মিছিল নিয়ে প্রেসক্লাবের সামনে আসতে থাকে বিএনপির নেতাকর্মীরা।

সকাল সোয়া ১০টার দিকে প্রেসক্লাবের সামনের সড়ক বিএনপি নেতাকর্মীদের ভিড়ে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। একপর্যায়ে প্রেসক্লাবের সামনের সড়কের একপাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে এ সড়কে চলাচলকারী যানবাহন অন্য দিকে চলে যাচ্ছে।

বেলা সোয়া ১১টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে নির্মিত অস্থায়ী মঞ্চে বক্তব্য দিচ্ছেন বিএনপি নেতারা। রাজধানীর বিভিন্ন ইউনিটের বিএনপির নেতাকর্মীরা এখনো প্রেসক্লাবের সামনে মিছিল করছেন।

বিএনপির ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তর শাখার উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশে ছাত্রদল, যুবদলসহ দলটির অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরাও অংশ নিচ্ছেন।

বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র করে সমাবেশ কেন্দ্রের আশপাশে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সব প্রবেশ পথ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। প্রেসক্লাবে সাংবাদিক ছাড়া কাউকে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না।

সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এখন বক্তব্য দিচ্ছেন দলের সিনিয়র নেতারা।

খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে তাকে দেশের বাইরে পাঠানোর দাবি জানান দলটির নেতারা।

গত শুক্রবার গভীর রাতে অসুস্থ হয়ে পড়েন খালেদা জিয়া। রাতে তাকে ঢাকার এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এনজিওগ্রামের পর তার ধমনীতে স্টেন্ট (রিং) বসানো হয়েছে।

শনিবার বিকেলে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়া ‘মাইল্ড হার্ট অ্যাটাক’ করেছেন। এনজিওগ্রামের জন্য হাসপাতালে ভর্তির পর দেখা গেছে, খালেদা জিয়ার হার্টের মূল রক্তনালিতে ৯৯ শতাংশ ব্লক রয়েছে। পরে সেখানে সফলভাবে আংটি স্থাপন করা হয়।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আংটি পরার কারণে হৃদযন্ত্রের সমস্যা থেকে সাময়িক মুক্তি পেয়েছেন খালেদা জিয়া। তিনি খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করতে সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান গতকাল বলেছেন, খালেদা জিয়াকে বিদেশে যেতে হলে তাকে আবার আইনি প্রক্রিয়া ও আদালতে যেতে হবে।

গত বছরের এপ্রিলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর খালেদা জিয়াকে এভারকেয়ার নামের পাঁচটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর আগে গত ৮ এপ্রিল তাকে নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য একই হাসপাতালে নেওয়া হয়।

দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে খালেদা জিয়াকে ২০১৬ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি কারাগারে পাঠানো হয়। দেশে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের পর ২০২০ সালের ২৫ মার্চ খালেদা জিয়াকে সাময়িকভাবে মুক্তি দেওয়া হয়। এরপর থেকে তিনি গুলশানে বসবাস করছেন।

২০২১ সালে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তির পর চিকিৎসকরা জানান, খালেদা জিয়া পরিপাকতন্ত্র ও লিভার সিরোসিসে রক্তক্ষরণে ভুগছিলেন। এছাড়া খালেদা জিয়া দীর্ঘদিন ধরে বাত, ডায়াবেটিসসহ নানা জটিলতায় ভুগছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার দাবিতে ঢাকায় সমাবেশ করেছে বিএনপি

আপডেট সময় ০৮:২৮:০৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১২ জুন ২০২২

রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সড়ক অবরোধ করে সমাবেশ করছে বিএনপি। দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির পাশাপাশি তার চিকিৎসা নিশ্চিত করতে বিদেশে পাঠানোর দাবিতে সমাবেশ করছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা।

রোববার সকাল ১০টা থেকে সমাবেশ করার পূর্ব ঘোষণা ছিল। তবে ঘোষিত সময়ের আগেই সমাবেশ শুরু হয়। সমাবেশের আয়োজন করে বিএনপির ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তর শাখা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল ৯টা থেকে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে মিছিল নিয়ে প্রেসক্লাবের সামনে আসতে থাকে বিএনপির নেতাকর্মীরা।

সকাল সোয়া ১০টার দিকে প্রেসক্লাবের সামনের সড়ক বিএনপি নেতাকর্মীদের ভিড়ে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। একপর্যায়ে প্রেসক্লাবের সামনের সড়কের একপাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে এ সড়কে চলাচলকারী যানবাহন অন্য দিকে চলে যাচ্ছে।

বেলা সোয়া ১১টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে নির্মিত অস্থায়ী মঞ্চে বক্তব্য দিচ্ছেন বিএনপি নেতারা। রাজধানীর বিভিন্ন ইউনিটের বিএনপির নেতাকর্মীরা এখনো প্রেসক্লাবের সামনে মিছিল করছেন।

বিএনপির ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তর শাখার উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশে ছাত্রদল, যুবদলসহ দলটির অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরাও অংশ নিচ্ছেন।

বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র করে সমাবেশ কেন্দ্রের আশপাশে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সব প্রবেশ পথ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। প্রেসক্লাবে সাংবাদিক ছাড়া কাউকে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না।

সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এখন বক্তব্য দিচ্ছেন দলের সিনিয়র নেতারা।

খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে তাকে দেশের বাইরে পাঠানোর দাবি জানান দলটির নেতারা।

গত শুক্রবার গভীর রাতে অসুস্থ হয়ে পড়েন খালেদা জিয়া। রাতে তাকে ঢাকার এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এনজিওগ্রামের পর তার ধমনীতে স্টেন্ট (রিং) বসানো হয়েছে।

শনিবার বিকেলে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়া ‘মাইল্ড হার্ট অ্যাটাক’ করেছেন। এনজিওগ্রামের জন্য হাসপাতালে ভর্তির পর দেখা গেছে, খালেদা জিয়ার হার্টের মূল রক্তনালিতে ৯৯ শতাংশ ব্লক রয়েছে। পরে সেখানে সফলভাবে আংটি স্থাপন করা হয়।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আংটি পরার কারণে হৃদযন্ত্রের সমস্যা থেকে সাময়িক মুক্তি পেয়েছেন খালেদা জিয়া। তিনি খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করতে সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান গতকাল বলেছেন, খালেদা জিয়াকে বিদেশে যেতে হলে তাকে আবার আইনি প্রক্রিয়া ও আদালতে যেতে হবে।

গত বছরের এপ্রিলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর খালেদা জিয়াকে এভারকেয়ার নামের পাঁচটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর আগে গত ৮ এপ্রিল তাকে নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য একই হাসপাতালে নেওয়া হয়।

দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে খালেদা জিয়াকে ২০১৬ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি কারাগারে পাঠানো হয়। দেশে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের পর ২০২০ সালের ২৫ মার্চ খালেদা জিয়াকে সাময়িকভাবে মুক্তি দেওয়া হয়। এরপর থেকে তিনি গুলশানে বসবাস করছেন।

২০২১ সালে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তির পর চিকিৎসকরা জানান, খালেদা জিয়া পরিপাকতন্ত্র ও লিভার সিরোসিসে রক্তক্ষরণে ভুগছিলেন। এছাড়া খালেদা জিয়া দীর্ঘদিন ধরে বাত, ডায়াবেটিসসহ নানা জটিলতায় ভুগছেন।