১১:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪

কেউ তাদের খাওয়াতে পারবে না

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:০৬:৩৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ জুন ২০২২
  • / ৭৮২ বার পড়া হয়েছে

bdopennews

ডারবান, পোর্ট এলিজাবেথ, মিরপুর, অ্যান্টিগা—এ বছর বাংলাদেশ টেস্ট দলের ব্যাটিং ধসের তালিকা দিন দিন দীর্ঘ হচ্ছে। চোখের পলকে, স্যান্ডবক্সের মতো, বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং অর্ডারের নিয়মিত চিত্র এখন।

এটি অ্যান্টিগার স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস স্টেডিয়ামেও মঞ্চস্থ হয়েছিল। দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ১০৩ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসানের 51 রানের ইনিংসটি বাদ দিলে এই সংখ্যাটি এমনকি দুই অঙ্কে নেমে যেত না।

দিনের খেলা শেষে অধিনায়ক সাকিবের কাছে ব্যাটিং অর্ডার ভাঙার কারণ জানতে চাওয়া হয়। সাকিবের সরল স্বীকারোক্তি, ‘আমি কোনোভাবেই ব্যাখ্যা করার সুযোগ দেখছি না। আমার কোন ব্যাখ্যা নেই। অন্য কারো আছে কিনা জানি না। “

টিম ম্যানেজমেন্টের কথা উল্লেখ করে সাকিব যোগ করেছেন, “সাধারণত, এই ক্ষেত্রে একজন কোচ-অধিনায়কের কাজ সহজ হয়। ধরুন কেউ পারফর্ম করেনি, তাকে ছেড়ে দিন। কোচ, অধিনায়ক এবং নির্বাচকদের জন্য সবচেয়ে সহজ কাজ। “আপনি পারফর্ম করছেন না, ছেড়ে দিলাম।”

তবে ব্যাটিং-ব্যর্থতার প্রেক্ষাপটে সব শেষে ‘আসল’ কথাটিই বললেন সাকিব। এমন ব্যাটিং ব্যর্থতার দায়ভার ব্যাটসম্যানদের নিতে বলেছেন বাংলাদেশের নতুন টেস্ট অধিনায়ক। তাদের কাজ করতে হবে। কেউ এসে তাদের খাওয়াবে না। ব্যর্থ, আশা করছি দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটসম্যানরা ঘুরে দাঁড়াবে যাতে আমরা এই ব্যর্থতা থেকে বেরিয়ে আসতে পারি। সেই চ্যালেঞ্জ থাকবেই। ‘

দিন শেষে একি বললেন সাকিব। তবে অ্যান্টিগা টেস্টের প্রথম সকালে টসের সময় উইকেট দেখে সাকিব ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রাক্তন ক্রিকেটার ড্যারেন গঙ্গাকে দলের ব্যাটিং ভাবনা নিয়ে বলেছিলেন, “উইকেটের দিকে তাকালে ব্যাটিংয়ের জন্য ভালো লাগছে। ব্যাটিং করা একটু কঠিন হতে পারে। কিন্তু সেই কঠিন সময়টা কাটিয়ে উঠতে বাকি ইনিংসটা ভালো করতে পারব

অবশ্য সাকিবের কথা নতুন কিছু নয়, এগুলো টেস্ট ক্রিকেটের পুরনো এবং সহজ ফর্মুলা। তবে সেটি ধরতে পারেনি বাংলাদেশ। তবে সেই সূত্র ধরেই দিন শেষে সফল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ওভার প্রতি দুই রানের নিচে নেমেও দিন শেষে মাত্র দুই উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। ৯৫ রানে বাংলাদেশ দলের স্কোর থেকে ৮ রান দূরে তারা

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

কেউ তাদের খাওয়াতে পারবে না

আপডেট সময় ০৫:০৬:৩৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ জুন ২০২২

ডারবান, পোর্ট এলিজাবেথ, মিরপুর, অ্যান্টিগা—এ বছর বাংলাদেশ টেস্ট দলের ব্যাটিং ধসের তালিকা দিন দিন দীর্ঘ হচ্ছে। চোখের পলকে, স্যান্ডবক্সের মতো, বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং অর্ডারের নিয়মিত চিত্র এখন।

এটি অ্যান্টিগার স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস স্টেডিয়ামেও মঞ্চস্থ হয়েছিল। দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ১০৩ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসানের 51 রানের ইনিংসটি বাদ দিলে এই সংখ্যাটি এমনকি দুই অঙ্কে নেমে যেত না।

দিনের খেলা শেষে অধিনায়ক সাকিবের কাছে ব্যাটিং অর্ডার ভাঙার কারণ জানতে চাওয়া হয়। সাকিবের সরল স্বীকারোক্তি, ‘আমি কোনোভাবেই ব্যাখ্যা করার সুযোগ দেখছি না। আমার কোন ব্যাখ্যা নেই। অন্য কারো আছে কিনা জানি না। “

টিম ম্যানেজমেন্টের কথা উল্লেখ করে সাকিব যোগ করেছেন, “সাধারণত, এই ক্ষেত্রে একজন কোচ-অধিনায়কের কাজ সহজ হয়। ধরুন কেউ পারফর্ম করেনি, তাকে ছেড়ে দিন। কোচ, অধিনায়ক এবং নির্বাচকদের জন্য সবচেয়ে সহজ কাজ। “আপনি পারফর্ম করছেন না, ছেড়ে দিলাম।”

তবে ব্যাটিং-ব্যর্থতার প্রেক্ষাপটে সব শেষে ‘আসল’ কথাটিই বললেন সাকিব। এমন ব্যাটিং ব্যর্থতার দায়ভার ব্যাটসম্যানদের নিতে বলেছেন বাংলাদেশের নতুন টেস্ট অধিনায়ক। তাদের কাজ করতে হবে। কেউ এসে তাদের খাওয়াবে না। ব্যর্থ, আশা করছি দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটসম্যানরা ঘুরে দাঁড়াবে যাতে আমরা এই ব্যর্থতা থেকে বেরিয়ে আসতে পারি। সেই চ্যালেঞ্জ থাকবেই। ‘

দিন শেষে একি বললেন সাকিব। তবে অ্যান্টিগা টেস্টের প্রথম সকালে টসের সময় উইকেট দেখে সাকিব ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রাক্তন ক্রিকেটার ড্যারেন গঙ্গাকে দলের ব্যাটিং ভাবনা নিয়ে বলেছিলেন, “উইকেটের দিকে তাকালে ব্যাটিংয়ের জন্য ভালো লাগছে। ব্যাটিং করা একটু কঠিন হতে পারে। কিন্তু সেই কঠিন সময়টা কাটিয়ে উঠতে বাকি ইনিংসটা ভালো করতে পারব

অবশ্য সাকিবের কথা নতুন কিছু নয়, এগুলো টেস্ট ক্রিকেটের পুরনো এবং সহজ ফর্মুলা। তবে সেটি ধরতে পারেনি বাংলাদেশ। তবে সেই সূত্র ধরেই দিন শেষে সফল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ওভার প্রতি দুই রানের নিচে নেমেও দিন শেষে মাত্র দুই উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। ৯৫ রানে বাংলাদেশ দলের স্কোর থেকে ৮ রান দূরে তারা