১১:২১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪

এবি পার্টির নিবন্ধন সংক্রান্ত ধারাবাহিক কর্মশালা-২ অনুষ্ঠিত হয়

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৮:১৬:২৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৪ জুন ২০২২
  • / ১০২৭ বার পড়া হয়েছে

bd news

 বড় দলগুলো চায়না নতুন কোন রাজনৈতিক দল নিবন্ধন পাক – এবি পার্টি আজ এবি পার্টি (আমার বাংলাদেশ পার্টি)’র উদ্যোগে ১২টি জেলার নেতৃবৃন্দকে নিয়ে নির্বাচন কমিশনে দলের নিবন্ধন কার্যক্রম তদারকি সংক্রান্ত দ্বিতীয় কর্মশালা এবি পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় জেলাগুলোতে বিদ্যমান কমিটি, উপজেলা কমিটি, ভোটার তালিকা বা জাতীয় পরিচয় পত্র অনুযায়ী সদস্য সংগ্রহ অভিযান ও কার্যকর অফিস সমুহের কার্যক্রম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

কর্মশালার শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন এবি পার্টির আহ্বায়ক সাবেক সচিব এএফএম সোলায়মান চৌধুরী। তিনি বলেন, আমরা নির্বাচন কমিশন থেকে দল নিবন্ধনের ফরম সংগ্রহ করেছি। একদিন আগে ঢাকা মহানগরীর নেতৃবৃন্দকে নিয়ে কর্মশালা করেছি। আজ আপনারা এসেছেন অনেক কষ্ট করে। নির্বাচন কমিশন দল নিবন্ধনের জন্য যে সমস্ত শর্ত আরোপ করেছে তার পঁচাত্তর শতাংশ শর্ত ইতোমধ্যেই আমরা পূরণ করেছি। আমরা শর্ত সমুহ সততার সাথে সঠিকভাবে পূরণ করবো আপনাদের সহোযোগিতা নিয়ে। যত কঠিন শর্তই হোক আপনারা আন্তরিক ভুমিকা রাখলে অতিদ্রুতই আমরা ফরম পুরন করে নির্বাচন কমিশনে আমরা জমা দিবো ইনশাআল্লাহ।

কর্মশালায় পার্টির যুগ্ম আহবায়ক অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশকে নিয়ে আমরা স্বপ্ন দেখি। পৃথিবীর অনেক দেশেই নতুন দেশপ্রেমিক রাজনৈতিক দল শুধু রাষ্ট্র ক্ষমতায়ই যায়নি তারা রাষ্ট্রকে বিশ্ব দরবারে পরাশক্তি হিসেবে দাঁড় করিয়েছে। এবি পার্টিও ইনশাআল্লাহ বাংলাদেশকে বিশ্ব দরবারে শান্তি, সমৃদ্ধি ও মানবিক রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তুলবে। দলের সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মন্জু বলেন, আমরা দল গঠনের পর অনেকে অনেক রকম উপহাস করেছে, তাদের সে উপহাস মাড়িয়ে এবি পার্টি ক্রমে বাস্তব একটি গতিশীল দল হিসেবে আবর্তিত হচ্ছে।

দলের নিবন্ধন সম্পন্ন হলে উপহাস কারীদের কিছুটা জবাব হবে। তিনি উপস্থিত বিভিন্ন জেলা নেতৃবৃন্দের উদ্দেশ্যে বলেন, নির্বাচন কমিশন দল নিবন্ধনের জন্য যেসমস্ত শর্ত দিয়েছেন তা পরস্পর বিপরীত মুখী এবং নতুন রাজনৈতিক দল গঠনের মারাত্মক প্রতিবন্ধক। মূলতঃ বড় দলগুলো চায়না নতুন কোন রাজনৈতিক দল নিবন্ধন পাক। আমরা বিভ্রান্তিকর শর্তসমূহ বাতিলের দাবি জানাই এবং শর্ত যত কঠিনই হোক এবি পার্টি সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে দলীয় নিবন্ধন নিশ্চিত করবে ইনশাআল্লাহ।

কর্মশালায় আরো বক্তব্য রাখেন পার্টির যুগ্ম সদস্য সচিব ব্যারিস্টার আসাদুজ্জামান ফুয়াদ, ব্যারিস্টার জুবায়ের আহমেদ ভুইঁয়া, বিএম নাজমুল হক, কেন্দ্রীয় দফতর সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন রানা, অর্থ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম এফসিএ, সহকারী সদস্য সচিব শাহ আব্দুর রহমান, ঢাকা মহানগর উত্তরের আহবায়ক আলতাফ হোসাইন, ছাত্র বিভাগের সমন্বয়ক মোহাম্মদ প্রিন্স।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন জেলা নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রংপুর জেলা আহবায়ক ও পার্টির সিঃ সহকারী সদস্য সচিব আব্দুল বাসেত মারজান, চট্রগাম মহানগর যুগ্ম আহবায়ক সিদ্দিকুর রহমান, সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট আবুল কাশেম, কক্সবাজার জেলা আহবায়ক অ্যাডভোকেট এনামুল হক শিকদার, সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট গোলাম ফারুক খান কায়সার, রংপুর মহানগর আহবায়ক অ্যাড. আব্দুর রউফ, জামালপুর জেলা আহবায়ক অ্যাড. ছানোয়ার হোসেন, রংপুর মহানগর সদস্য সচিব মাহবুবর রহমান, জেলা সদস্য সচিব এনামুল হক, বগুড়া জেলা আহবায়ক গোলাম রহমান রয়েল, সদস্য সচিব এস এ জাহিদ সরকার, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা সমন্বয়ক জিয়া চৌধুরী, দিনাজপুর জেলা সদস্য সচিব মেহেদী হাসান চৌধুরী পলাশ, নীলফামারী জেলা আহবায়ক অধ্যাপক আবু হেলাল, শেরপুর জেলা আহবায়ক শাহজাহান মল্লিক, ফেনী জেলার যুগ্ম আহ্বায়ক জাফর আহমদ, অধ্যাপক জিলানী মজুমদার, গাইবান্ধা জেলা যুগ্ম আহবায়ক মোস্তফা কামাল রঞ্জু, কুড়িগ্রাম জেলা আহবায়ক রিয়াজুল আলম লাভলু, লালমনিরহাট জেলা আহবায়ক আসাদুজ্জামান আসাদ সহ কেন্দ্রীয় ও জেলা পর্যায়ের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

এবি পার্টির নিবন্ধন সংক্রান্ত ধারাবাহিক কর্মশালা-২ অনুষ্ঠিত হয়

আপডেট সময় ০৮:১৬:২৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৪ জুন ২০২২

 বড় দলগুলো চায়না নতুন কোন রাজনৈতিক দল নিবন্ধন পাক – এবি পার্টি আজ এবি পার্টি (আমার বাংলাদেশ পার্টি)’র উদ্যোগে ১২টি জেলার নেতৃবৃন্দকে নিয়ে নির্বাচন কমিশনে দলের নিবন্ধন কার্যক্রম তদারকি সংক্রান্ত দ্বিতীয় কর্মশালা এবি পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় জেলাগুলোতে বিদ্যমান কমিটি, উপজেলা কমিটি, ভোটার তালিকা বা জাতীয় পরিচয় পত্র অনুযায়ী সদস্য সংগ্রহ অভিযান ও কার্যকর অফিস সমুহের কার্যক্রম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

কর্মশালার শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন এবি পার্টির আহ্বায়ক সাবেক সচিব এএফএম সোলায়মান চৌধুরী। তিনি বলেন, আমরা নির্বাচন কমিশন থেকে দল নিবন্ধনের ফরম সংগ্রহ করেছি। একদিন আগে ঢাকা মহানগরীর নেতৃবৃন্দকে নিয়ে কর্মশালা করেছি। আজ আপনারা এসেছেন অনেক কষ্ট করে। নির্বাচন কমিশন দল নিবন্ধনের জন্য যে সমস্ত শর্ত আরোপ করেছে তার পঁচাত্তর শতাংশ শর্ত ইতোমধ্যেই আমরা পূরণ করেছি। আমরা শর্ত সমুহ সততার সাথে সঠিকভাবে পূরণ করবো আপনাদের সহোযোগিতা নিয়ে। যত কঠিন শর্তই হোক আপনারা আন্তরিক ভুমিকা রাখলে অতিদ্রুতই আমরা ফরম পুরন করে নির্বাচন কমিশনে আমরা জমা দিবো ইনশাআল্লাহ।

কর্মশালায় পার্টির যুগ্ম আহবায়ক অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশকে নিয়ে আমরা স্বপ্ন দেখি। পৃথিবীর অনেক দেশেই নতুন দেশপ্রেমিক রাজনৈতিক দল শুধু রাষ্ট্র ক্ষমতায়ই যায়নি তারা রাষ্ট্রকে বিশ্ব দরবারে পরাশক্তি হিসেবে দাঁড় করিয়েছে। এবি পার্টিও ইনশাআল্লাহ বাংলাদেশকে বিশ্ব দরবারে শান্তি, সমৃদ্ধি ও মানবিক রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তুলবে। দলের সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মন্জু বলেন, আমরা দল গঠনের পর অনেকে অনেক রকম উপহাস করেছে, তাদের সে উপহাস মাড়িয়ে এবি পার্টি ক্রমে বাস্তব একটি গতিশীল দল হিসেবে আবর্তিত হচ্ছে।

দলের নিবন্ধন সম্পন্ন হলে উপহাস কারীদের কিছুটা জবাব হবে। তিনি উপস্থিত বিভিন্ন জেলা নেতৃবৃন্দের উদ্দেশ্যে বলেন, নির্বাচন কমিশন দল নিবন্ধনের জন্য যেসমস্ত শর্ত দিয়েছেন তা পরস্পর বিপরীত মুখী এবং নতুন রাজনৈতিক দল গঠনের মারাত্মক প্রতিবন্ধক। মূলতঃ বড় দলগুলো চায়না নতুন কোন রাজনৈতিক দল নিবন্ধন পাক। আমরা বিভ্রান্তিকর শর্তসমূহ বাতিলের দাবি জানাই এবং শর্ত যত কঠিনই হোক এবি পার্টি সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে দলীয় নিবন্ধন নিশ্চিত করবে ইনশাআল্লাহ।

কর্মশালায় আরো বক্তব্য রাখেন পার্টির যুগ্ম সদস্য সচিব ব্যারিস্টার আসাদুজ্জামান ফুয়াদ, ব্যারিস্টার জুবায়ের আহমেদ ভুইঁয়া, বিএম নাজমুল হক, কেন্দ্রীয় দফতর সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন রানা, অর্থ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম এফসিএ, সহকারী সদস্য সচিব শাহ আব্দুর রহমান, ঢাকা মহানগর উত্তরের আহবায়ক আলতাফ হোসাইন, ছাত্র বিভাগের সমন্বয়ক মোহাম্মদ প্রিন্স।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন জেলা নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রংপুর জেলা আহবায়ক ও পার্টির সিঃ সহকারী সদস্য সচিব আব্দুল বাসেত মারজান, চট্রগাম মহানগর যুগ্ম আহবায়ক সিদ্দিকুর রহমান, সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট আবুল কাশেম, কক্সবাজার জেলা আহবায়ক অ্যাডভোকেট এনামুল হক শিকদার, সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট গোলাম ফারুক খান কায়সার, রংপুর মহানগর আহবায়ক অ্যাড. আব্দুর রউফ, জামালপুর জেলা আহবায়ক অ্যাড. ছানোয়ার হোসেন, রংপুর মহানগর সদস্য সচিব মাহবুবর রহমান, জেলা সদস্য সচিব এনামুল হক, বগুড়া জেলা আহবায়ক গোলাম রহমান রয়েল, সদস্য সচিব এস এ জাহিদ সরকার, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা সমন্বয়ক জিয়া চৌধুরী, দিনাজপুর জেলা সদস্য সচিব মেহেদী হাসান চৌধুরী পলাশ, নীলফামারী জেলা আহবায়ক অধ্যাপক আবু হেলাল, শেরপুর জেলা আহবায়ক শাহজাহান মল্লিক, ফেনী জেলার যুগ্ম আহ্বায়ক জাফর আহমদ, অধ্যাপক জিলানী মজুমদার, গাইবান্ধা জেলা যুগ্ম আহবায়ক মোস্তফা কামাল রঞ্জু, কুড়িগ্রাম জেলা আহবায়ক রিয়াজুল আলম লাভলু, লালমনিরহাট জেলা আহবায়ক আসাদুজ্জামান আসাদ সহ কেন্দ্রীয় ও জেলা পর্যায়ের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।