০৭:৩৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪

একটি ময়নাতদন্ত এলকে-এর হার্টের প্রকৃত অবস্থা প্রকাশ করেছে

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৩:৫৬:১১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ জুন ২০২২
  • / ৮৫৩ বার পড়া হয়েছে

bdopennews

একটি ময়নাতদন্ত এলকে-এর হার্টের প্রকৃত অবস্থা প্রকাশ করেছে । বৃহস্পতিবার মুম্বাইয়ের ভারাসোভা শ্মশানে তার শেষকৃত্যে তার পরিবারের সদস্যরা, সহকর্মী এবং সাধারণ ভক্তরা উপস্থিত ছিলেন। এদিকে ময়নাতদন্তের প্রাথমিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গায়কের হার্টের সমস্যা ছিল। তিনি কলকাতায় গান গাইতে আসার আগে স্ত্রী জ্যোতি লক্ষ্মী কৃষ্ণাকে তার অসুস্থতার কথাও বলেছিলেন। হাতে ব্যথার কথাও জানান তিনি।

অতীতে জানা না গেলেও মৃত্যুর পর ধীরে ধীরে বেরিয়ে আসা হার্টের সমস্যা। ময়নাতদন্তের বিস্তারিত প্রতিবেদনে উঠে এসেছে চমকপ্রদ তথ্য।

জানা গেছে, কেকে-র হৃৎপিণ্ড সাদা ফ্যাটে ঢাকা ছিল। চর্বির পুরু স্তর ছিল। অতিরিক্ত চর্বি জমে তার হার্টের ভাল্বও শক্ত হয়ে গেছে। এ কারণে তার হার্টের সমস্যা রয়েছে।

যিনি নিয়মিত ওষুধ খেতেন হার্ট সচল রাখতে। তার পেটে ১০টি ওষুধ পাওয়া গেছে। এমনকি গত মঙ্গলবার মৃত্যুর দিনেও কে অনেক ওষুধ খেয়ে মঞ্চে ওঠেন। চিকিত্সকরা বলছেন যে এই ধরনের চর্বিযুক্ত হৃদয় যাদের স্ট্রোক বা হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বেশি থাকে।

মৃত্যুর দিনও কে কে তার স্ত্রীকে ফোন করে তার অসুস্থতার কথা জানায়। অতিরিক্ত চর্বির কারণে হার্টের ব্লকেজই তার মৃত্যুর কারণ হতে পারে বলে চিকিৎসকদের ধারণা।

এদিকে কেকে মারা যাওয়ার পর গানটি ফিরেছে কলকাতার নজরুল মঞ্চে। এই মঞ্চেই গত মঙ্গলবার পরপর ২০টি গান গেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন কেকে। এরপর মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। সেই ঘটনার চতুর্থ দিনে আজ নজরুলমঞ্চে ফিরছে গানের অনুষ্ঠান। আজ একই মঞ্চে গাইবেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী অনুপম রায়। নজরুল মঞ্চে সন্ধ্যা ৭টায় অনুপম রায়ের গান শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

কে কে মারা যাওয়ার পর নজরুল মঞ্চের ব্যবস্থাপনা নিয়ে বড় প্রশ্ন দেখা দেয়। গান গাওয়ার মঞ্চে এয়ার কন্ডিশন নিয়ে অভিযোগ করেছেন গায়ক নিজেই। অভিযোগ রয়েছে, সামর্থ্যের কয়েক গুণ দর্শনার্থীদের প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হচ্ছে। তাই আজকের অনুষ্ঠানকে সামনে রেখে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

আজকের সঙ্গীত সন্ধ্যাকে নিরবচ্ছিন্ন করতে অনুপমের দল কলকাতা পুলিশের সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করেছে। জানা গেছে, নজরুল মঞ্চে দর্শকের জন্য ২ হাজার ৪৮২টি আসন রয়েছে। তবে আজ মাত্র 1,500 দর্শককে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল।

অনুষ্ঠানস্থলে দুটি অ্যাম্বুলেন্স রাখা হয়েছে। যেখানে সার্বক্ষণিক দুইজন অভিজ্ঞ চিকিৎসক থাকবেন। তাদের একজন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ এবং অন্যজন হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ। জরুরী চিকিৎসাও থাকবে। মোবাইল এয়ার কন্ডিশনার, স্ট্যান্ড ফ্যান এবং স্বেচ্ছাসেবকদের একটি দলও প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

একটি ময়নাতদন্ত এলকে-এর হার্টের প্রকৃত অবস্থা প্রকাশ করেছে

আপডেট সময় ০৩:৫৬:১১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ জুন ২০২২

একটি ময়নাতদন্ত এলকে-এর হার্টের প্রকৃত অবস্থা প্রকাশ করেছে । বৃহস্পতিবার মুম্বাইয়ের ভারাসোভা শ্মশানে তার শেষকৃত্যে তার পরিবারের সদস্যরা, সহকর্মী এবং সাধারণ ভক্তরা উপস্থিত ছিলেন। এদিকে ময়নাতদন্তের প্রাথমিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গায়কের হার্টের সমস্যা ছিল। তিনি কলকাতায় গান গাইতে আসার আগে স্ত্রী জ্যোতি লক্ষ্মী কৃষ্ণাকে তার অসুস্থতার কথাও বলেছিলেন। হাতে ব্যথার কথাও জানান তিনি।

অতীতে জানা না গেলেও মৃত্যুর পর ধীরে ধীরে বেরিয়ে আসা হার্টের সমস্যা। ময়নাতদন্তের বিস্তারিত প্রতিবেদনে উঠে এসেছে চমকপ্রদ তথ্য।

জানা গেছে, কেকে-র হৃৎপিণ্ড সাদা ফ্যাটে ঢাকা ছিল। চর্বির পুরু স্তর ছিল। অতিরিক্ত চর্বি জমে তার হার্টের ভাল্বও শক্ত হয়ে গেছে। এ কারণে তার হার্টের সমস্যা রয়েছে।

যিনি নিয়মিত ওষুধ খেতেন হার্ট সচল রাখতে। তার পেটে ১০টি ওষুধ পাওয়া গেছে। এমনকি গত মঙ্গলবার মৃত্যুর দিনেও কে অনেক ওষুধ খেয়ে মঞ্চে ওঠেন। চিকিত্সকরা বলছেন যে এই ধরনের চর্বিযুক্ত হৃদয় যাদের স্ট্রোক বা হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বেশি থাকে।

মৃত্যুর দিনও কে কে তার স্ত্রীকে ফোন করে তার অসুস্থতার কথা জানায়। অতিরিক্ত চর্বির কারণে হার্টের ব্লকেজই তার মৃত্যুর কারণ হতে পারে বলে চিকিৎসকদের ধারণা।

এদিকে কেকে মারা যাওয়ার পর গানটি ফিরেছে কলকাতার নজরুল মঞ্চে। এই মঞ্চেই গত মঙ্গলবার পরপর ২০টি গান গেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন কেকে। এরপর মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। সেই ঘটনার চতুর্থ দিনে আজ নজরুলমঞ্চে ফিরছে গানের অনুষ্ঠান। আজ একই মঞ্চে গাইবেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী অনুপম রায়। নজরুল মঞ্চে সন্ধ্যা ৭টায় অনুপম রায়ের গান শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

কে কে মারা যাওয়ার পর নজরুল মঞ্চের ব্যবস্থাপনা নিয়ে বড় প্রশ্ন দেখা দেয়। গান গাওয়ার মঞ্চে এয়ার কন্ডিশন নিয়ে অভিযোগ করেছেন গায়ক নিজেই। অভিযোগ রয়েছে, সামর্থ্যের কয়েক গুণ দর্শনার্থীদের প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হচ্ছে। তাই আজকের অনুষ্ঠানকে সামনে রেখে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

আজকের সঙ্গীত সন্ধ্যাকে নিরবচ্ছিন্ন করতে অনুপমের দল কলকাতা পুলিশের সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করেছে। জানা গেছে, নজরুল মঞ্চে দর্শকের জন্য ২ হাজার ৪৮২টি আসন রয়েছে। তবে আজ মাত্র 1,500 দর্শককে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল।

অনুষ্ঠানস্থলে দুটি অ্যাম্বুলেন্স রাখা হয়েছে। যেখানে সার্বক্ষণিক দুইজন অভিজ্ঞ চিকিৎসক থাকবেন। তাদের একজন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ এবং অন্যজন হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ। জরুরী চিকিৎসাও থাকবে। মোবাইল এয়ার কন্ডিশনার, স্ট্যান্ড ফ্যান এবং স্বেচ্ছাসেবকদের একটি দলও প্রস্তুত রাখা হয়েছে।