১১:৩৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪

আর্জেন্টিনা 2022 সালকে ভয় পায়

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৬:০৮:৪২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ জুন ২০২২
  • / ৪০৮ বার পড়া হয়েছে

bdopennews

বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা বরাবরই ফেভারিটের তালিকায় নাম থাকায়, লিওনেল মেসির দলে থাকা মানে দলটিকে কখনোই ছোট করে দেখা যাবে না। যাইহোক, 2018 বিশ্বকাপে বিস্ময়কর পারফরম্যান্স এবং তারপরে লিওনেল স্কালোনির অধীনে প্রথম দেড় বছর, কাতার বিশ্বকাপে তাদের ‘হট ফেভারিট’-এর তালিকায় রাখতে পারেনি। কিন্তু মেসি যখন 2021 সালের কোপা আমেরিকা জিতেছিল এবং আর্জেন্টিনার 26 বছর বয়সী শিরোপাকে হারিয়েছিল তখন সবকিছু কেমন বদলে গিয়েছিল!

১১ মাসের মধ্যে আন্তঃমহাদেশীয় আধিপত্যের লড়াই লা ফিনালিসিমাতে ইউরো জয়ী ইতালির কাছেও হেরেছে আর্জেন্টিনা। এরপর আর্জেন্টিনার ২০২২ বিশ্বকাপের স্বপ্ন আরও বেগ পেতে হয়েছে। আর্জেন্টিনা এখন অন্যতম ফেভারিট।

কিন্তু ২০২২ সালে মেসিকে কি একটু শঙ্কিত হতে হবে? 2 বছর ধরে, আলবিসেলেস্তে বিশ্বকাপে এর চেয়ে ভালো কিছু করতে পারেননি!

কাতারের মাটিতে এটাই মেসির শেষ বিশ্বকাপ, তাই বিশ্বমঞ্চে আকাশ-সাদা উল্লাসের স্বপ্ন আর্জেন্টাইনদের। কিন্তু বছরের শেষ সংখ্যা তাদের স্বপ্নকে বাধাগ্রস্ত করবে। আর্জেন্টিনার দৈনিক টিওয়াইসি স্পোর্টসও সেই কথা মনে করিয়ে দিয়েছে।

এখন পর্যন্ত 21টি বিশ্বকাপের মধ্যে তিনবার বিশ্বকাপ শেষ হয়েছে ‘2’ দিয়ে। 1930 সালে শুরু হওয়া বিশ্বকাপটি প্রতি চার বছর অন্তর 1932 সালে অনুষ্ঠিত হয়েছিল, তাই 1932 সালে এটি হওয়ার কোন সম্ভাবনা ছিল না। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে 1942 সালে হয়নি। এটি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের শেষে 1950 সালে শুরু হয়েছিল এবং 1952 সালে হয়নি। চার বছরের চক্রের কারণে, 1982, 1992 এবং 2012 সালেও বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হয়নি। মাত্র 1982, 1982, 2002—এই তিনবার বিশ্বকাপ ফাইনালের সংখ্যা ছিল 2। তাও আবার! 2022!

এ বছরও কি আর্জেন্টিনার জন্য ‘বিপর্যয়’ হবে? শুধুমাত্র সময় বলে দেবে. যাইহোক, টিওয়াইসি স্পোর্টস আমাদের মনে করিয়ে দিয়েছে কেন 1982, 1982 এবং 2002 বিশ্বকাপ আর্জেন্টিনার জন্য একটি বিপর্যয় ছিল।

চিলি 1982

নিজেদের দেশে বিশ্বকাপ আয়োজন করতে ছুটে যায় আর্জেন্টিনা। আগের দুটি বিশ্বকাপ ইউরোপের দেশগুলো আয়োজন করেছিল, তাই দক্ষিণ আমেরিকায় বিশ্বকাপ আয়োজনের দাবি ছিল জোরালো। কিন্তু সেখানে আর্জেন্টিনা ও চিলি প্রতিদ্বন্দ্বিতায় পড়ে যায়।

আর্জেন্টিনা ফেডারেশনের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট রাল কলম্বো যখন তাদের দাবির সমর্থনে ঘোষণা করলেন, “আমরা চাইলে আগামীকাল বিশ্বকাপ আয়োজন করতে পারি। আমাদের যা যা দরকার সবই আছে।” ফলে ৩২-১০ ব্যবধানে জিতেছে চিলি!

নিজেদের দেশেই হোক, বিশ্বকাপ নিজেদের মহাদেশেই হোক। বাছাই পর্বে তার বিপক্ষে ভালো খেলেছে আর্জেন্টিনা। অংশগ্রহণকারী ১৬টি দেশের মধ্যে আর্জেন্টিনা ছিল ফেবারিট। কিন্তু কি ঘটেছিল! আর্জেন্টিনা বুলগেরিয়ার বিপক্ষে ১-০ গোলে জয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করেছিল, তারপর পরের ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে ৩-১ গোলে হেরেছিল, শেষ ম্যাচে হাঙ্গেরির বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে। হাঙ্গেরি ও ইংল্যান্ডের পর গ্রুপে তৃতীয় আর্জেন্টিনা।

সেবার ব্রাজিলের টানা দ্বিতীয় বিশ্বকাপ জয়ে নুন ছিটিয়ে দেওয়া হয়েছে আর্জেন্টিনার কাটে।

স্পেন 1982

নিজেদের আগের বিশ্বকাপেই প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ জিতেছে আর্জেন্টিনা। কোচ সিজার লুইস মেনোত্তি দলের বেশিরভাগকে পেছনে ফেলেছেন। তার সঙ্গে ১৯৮ বিশ্বকাপে খুব একটা আলোচনায় না আসা দিয়েগো ম্যারাডোনাও ছিলেন ৭২তম বিশ্বকাপে। কিন্তু শুরুতেই হোঁচট! ন্যু ক্যাম্পে বেলজিয়ামের কাছে ১-০ গোলে হেরে শুরু করে আর্জেন্টিনা।

পরের দুই ম্যাচে হাঙ্গেরিকে 4-1 এবং এল সালভাদরকে 2-0 গোলে পরাজিত করার পর পরের রাউন্ডে যেতে কোনো সমস্যা হয়নি ম্যারাডোনার। কিন্তু সে সময়ের বিশ্বকাপের টেবিলে গ্রুপ পর্বের পর দ্বিতীয় গ্রুপ পর্বে ছিটকে পড়তো। সেখানে ইতালি ও ব্রাজিলের গ্রুপে পড়ে তিন দলের সঙ্গে আর্জেন্টিনা! বিশ্বকাপের ফাইনালে ইতালির কাছে ২-১ গোলে হেরে দ্বিতীয় রাউন্ডে ব্রাজিলের কাছে ৩-১ গোলে হেরেছে আর্জেন্টিনা।

জাপান-দক্ষিণ কোরিয়া 2002

এশিয়ার প্রথম বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা ছিল হট ফেভারিট। কেন না! বাতিস্তুতা, ক্রেসপো, ভেরন, ওর্তেগা, আইমারদের দলে তারকার অভাব ছিল না, এমনকি ডাগআউটেও আর্জেন্টিনার বিখ্যাত কোচ মার্সেলো বিয়েলসা। বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে সবাইকে হারিয়ে আর্জেন্টিনা।

কিন্তু বিশ্বকাপে মারা যাওয়া আলবিসেলেস্তে প্রথম বাধাতেই মুখ থুবড়ে পড়েন। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ১-০ গোলের জয়ে তারা ভালো শুরু করেছিল, কিন্তু দ্বিতীয় লেগে ইংল্যান্ডের কাছে ১-০ গোলে হেরেছিল। তৃতীয় ম্যাচে জিততে হলেও সুইডেনের বিপক্ষে পিছিয়ে পড়ে শেষ পর্যন্ত ড্র করতে সক্ষম হয় আর্জেন্টিনা। আর্জেন্টিনা 1982 বিশ্বকাপের পর প্রথমবারের মতো গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেয়।

মেসি কি পারবে ভাগ্য বদলাতে?

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

আর্জেন্টিনা 2022 সালকে ভয় পায়

আপডেট সময় ০৬:০৮:৪২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ জুন ২০২২

বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা বরাবরই ফেভারিটের তালিকায় নাম থাকায়, লিওনেল মেসির দলে থাকা মানে দলটিকে কখনোই ছোট করে দেখা যাবে না। যাইহোক, 2018 বিশ্বকাপে বিস্ময়কর পারফরম্যান্স এবং তারপরে লিওনেল স্কালোনির অধীনে প্রথম দেড় বছর, কাতার বিশ্বকাপে তাদের ‘হট ফেভারিট’-এর তালিকায় রাখতে পারেনি। কিন্তু মেসি যখন 2021 সালের কোপা আমেরিকা জিতেছিল এবং আর্জেন্টিনার 26 বছর বয়সী শিরোপাকে হারিয়েছিল তখন সবকিছু কেমন বদলে গিয়েছিল!

১১ মাসের মধ্যে আন্তঃমহাদেশীয় আধিপত্যের লড়াই লা ফিনালিসিমাতে ইউরো জয়ী ইতালির কাছেও হেরেছে আর্জেন্টিনা। এরপর আর্জেন্টিনার ২০২২ বিশ্বকাপের স্বপ্ন আরও বেগ পেতে হয়েছে। আর্জেন্টিনা এখন অন্যতম ফেভারিট।

কিন্তু ২০২২ সালে মেসিকে কি একটু শঙ্কিত হতে হবে? 2 বছর ধরে, আলবিসেলেস্তে বিশ্বকাপে এর চেয়ে ভালো কিছু করতে পারেননি!

কাতারের মাটিতে এটাই মেসির শেষ বিশ্বকাপ, তাই বিশ্বমঞ্চে আকাশ-সাদা উল্লাসের স্বপ্ন আর্জেন্টাইনদের। কিন্তু বছরের শেষ সংখ্যা তাদের স্বপ্নকে বাধাগ্রস্ত করবে। আর্জেন্টিনার দৈনিক টিওয়াইসি স্পোর্টসও সেই কথা মনে করিয়ে দিয়েছে।

এখন পর্যন্ত 21টি বিশ্বকাপের মধ্যে তিনবার বিশ্বকাপ শেষ হয়েছে ‘2’ দিয়ে। 1930 সালে শুরু হওয়া বিশ্বকাপটি প্রতি চার বছর অন্তর 1932 সালে অনুষ্ঠিত হয়েছিল, তাই 1932 সালে এটি হওয়ার কোন সম্ভাবনা ছিল না। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে 1942 সালে হয়নি। এটি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের শেষে 1950 সালে শুরু হয়েছিল এবং 1952 সালে হয়নি। চার বছরের চক্রের কারণে, 1982, 1992 এবং 2012 সালেও বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হয়নি। মাত্র 1982, 1982, 2002—এই তিনবার বিশ্বকাপ ফাইনালের সংখ্যা ছিল 2। তাও আবার! 2022!

এ বছরও কি আর্জেন্টিনার জন্য ‘বিপর্যয়’ হবে? শুধুমাত্র সময় বলে দেবে. যাইহোক, টিওয়াইসি স্পোর্টস আমাদের মনে করিয়ে দিয়েছে কেন 1982, 1982 এবং 2002 বিশ্বকাপ আর্জেন্টিনার জন্য একটি বিপর্যয় ছিল।

চিলি 1982

নিজেদের দেশে বিশ্বকাপ আয়োজন করতে ছুটে যায় আর্জেন্টিনা। আগের দুটি বিশ্বকাপ ইউরোপের দেশগুলো আয়োজন করেছিল, তাই দক্ষিণ আমেরিকায় বিশ্বকাপ আয়োজনের দাবি ছিল জোরালো। কিন্তু সেখানে আর্জেন্টিনা ও চিলি প্রতিদ্বন্দ্বিতায় পড়ে যায়।

আর্জেন্টিনা ফেডারেশনের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট রাল কলম্বো যখন তাদের দাবির সমর্থনে ঘোষণা করলেন, “আমরা চাইলে আগামীকাল বিশ্বকাপ আয়োজন করতে পারি। আমাদের যা যা দরকার সবই আছে।” ফলে ৩২-১০ ব্যবধানে জিতেছে চিলি!

নিজেদের দেশেই হোক, বিশ্বকাপ নিজেদের মহাদেশেই হোক। বাছাই পর্বে তার বিপক্ষে ভালো খেলেছে আর্জেন্টিনা। অংশগ্রহণকারী ১৬টি দেশের মধ্যে আর্জেন্টিনা ছিল ফেবারিট। কিন্তু কি ঘটেছিল! আর্জেন্টিনা বুলগেরিয়ার বিপক্ষে ১-০ গোলে জয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করেছিল, তারপর পরের ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে ৩-১ গোলে হেরেছিল, শেষ ম্যাচে হাঙ্গেরির বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে। হাঙ্গেরি ও ইংল্যান্ডের পর গ্রুপে তৃতীয় আর্জেন্টিনা।

সেবার ব্রাজিলের টানা দ্বিতীয় বিশ্বকাপ জয়ে নুন ছিটিয়ে দেওয়া হয়েছে আর্জেন্টিনার কাটে।

স্পেন 1982

নিজেদের আগের বিশ্বকাপেই প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ জিতেছে আর্জেন্টিনা। কোচ সিজার লুইস মেনোত্তি দলের বেশিরভাগকে পেছনে ফেলেছেন। তার সঙ্গে ১৯৮ বিশ্বকাপে খুব একটা আলোচনায় না আসা দিয়েগো ম্যারাডোনাও ছিলেন ৭২তম বিশ্বকাপে। কিন্তু শুরুতেই হোঁচট! ন্যু ক্যাম্পে বেলজিয়ামের কাছে ১-০ গোলে হেরে শুরু করে আর্জেন্টিনা।

পরের দুই ম্যাচে হাঙ্গেরিকে 4-1 এবং এল সালভাদরকে 2-0 গোলে পরাজিত করার পর পরের রাউন্ডে যেতে কোনো সমস্যা হয়নি ম্যারাডোনার। কিন্তু সে সময়ের বিশ্বকাপের টেবিলে গ্রুপ পর্বের পর দ্বিতীয় গ্রুপ পর্বে ছিটকে পড়তো। সেখানে ইতালি ও ব্রাজিলের গ্রুপে পড়ে তিন দলের সঙ্গে আর্জেন্টিনা! বিশ্বকাপের ফাইনালে ইতালির কাছে ২-১ গোলে হেরে দ্বিতীয় রাউন্ডে ব্রাজিলের কাছে ৩-১ গোলে হেরেছে আর্জেন্টিনা।

জাপান-দক্ষিণ কোরিয়া 2002

এশিয়ার প্রথম বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা ছিল হট ফেভারিট। কেন না! বাতিস্তুতা, ক্রেসপো, ভেরন, ওর্তেগা, আইমারদের দলে তারকার অভাব ছিল না, এমনকি ডাগআউটেও আর্জেন্টিনার বিখ্যাত কোচ মার্সেলো বিয়েলসা। বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে সবাইকে হারিয়ে আর্জেন্টিনা।

কিন্তু বিশ্বকাপে মারা যাওয়া আলবিসেলেস্তে প্রথম বাধাতেই মুখ থুবড়ে পড়েন। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ১-০ গোলের জয়ে তারা ভালো শুরু করেছিল, কিন্তু দ্বিতীয় লেগে ইংল্যান্ডের কাছে ১-০ গোলে হেরেছিল। তৃতীয় ম্যাচে জিততে হলেও সুইডেনের বিপক্ষে পিছিয়ে পড়ে শেষ পর্যন্ত ড্র করতে সক্ষম হয় আর্জেন্টিনা। আর্জেন্টিনা 1982 বিশ্বকাপের পর প্রথমবারের মতো গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেয়।

মেসি কি পারবে ভাগ্য বদলাতে?