১০:১৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

আমি কখনই মহিলাদের ‘হ্যাঁ’ বলতে বাধ্য করি না: শাহরুখ খান

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:৫১:৫৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৬ জুন ২০২২
  • / ১১৬৬ বার পড়া হয়েছে

bdopennews

তাকে বলিউডের ‘কিং খান’ বলা হয়। শাহরুখ খান তার সোজাসাপ্টা কথা এবং ব্যক্তিত্ব দিয়ে সবসময় রাজার মতো সবার মন জয় করেছেন। বিশেষ করে নারীরা। এমনকি 56 বছর বয়সেও, তিনি অনেক ষোল বছরের হার্টথ্রব ছিলেন। কি সেই কৌশল? যার সুবাদে তিনি এত সুন্দর করে নারীদের মন জয় করেছেন! সেই রহস্য ফাঁস করলেন ‘রাজা’ নিজেই।

‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’-এর নায়ক ছোটবেলা থেকেই নারীদের ঘেরে বড় হয়েছেন। পরে তিনি তার স্ত্রী গৌরী খান এবং মেয়ে সুহানার কাছ থেকে অনেক কিছু শিখেছেন।

এক সাক্ষাৎকারে শাহরুখ খান বলেন, “আমার বয়স যখন ১৪ বছর তখন আমার বাবা মারা যান। আমি আমার মায়ের কাছে বড় হয়েছি। মায়ের কোন ভাই ছিল না। নানাও আগেই মারা গেছেন। তাই পরিবার বলতে, আমার একজন মা, তিন খালা এবং একজন দাদী ছিলেন। তারপর যখন আমার মাও চলে গেলেন, তখন আমার জীবনে আমার স্ত্রী ও মেয়ে রয়ে গেল। “

স্পষ্টতই, তার পরিবারের মহিলারাই আজকের ‘রাজা’কে পৃথিবী দেখতে শিখিয়েছে। শাহরুখ জানিয়েছেন, দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মহিলাদের সঙ্গে কাজ করতে তাঁর কোনো সমস্যা নেই। নারীরাও তাকে নায়ক বানিয়েছে। কিন্তু নারীদের সম্পর্কে আসল ধারণা পেয়েছেন তিনি যখন কাজ করতে এসেছেন। তা স্বীকার করেছেন কিং খান নিজেই। শাহরুখ বলেন, “যখন আমি কাজে গেলাম, দেখলাম আমার মহিলা সহকর্মীরা অসম্ভব পরিশ্রমী। তারা আমার চেয়ে অনেক বেশি পরিশ্রম করতে পারে। এত নিয়মিত যে আমি সেটে ওঠার অন্তত 4-5 ঘন্টা আগে তারা আসত। পুরুষতান্ত্রিক বিশ্বে এখনো নারীকে দ্বিতীয় শ্রেণীর নাগরিক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। কিন্তু প্রতিমুহূর্তে তারা সেই শিক্ষা দিচ্ছে। “

‘কাল হো না হো’-এর নায়ক বলেছেন যে তিনি নারী মহলে মেয়েদের সাথে কীভাবে কথা বলতে হয় তাও শিখেছিলেন। যদি কোনো কিছুর জন্য অনুমতি নেওয়ার প্রয়োজন হয়, কোনো নারীকে রাজি করাতে হয়, তাহলে শাহরুখ জানেন কীভাবে তা করতে হয়। তাকে কখনো কোনো মেয়েকে হ্যাঁ বলতে বাধ্য করতে হয়নি, ‘বাদশা’ জোরে বলল। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

আমি কখনই মহিলাদের ‘হ্যাঁ’ বলতে বাধ্য করি না: শাহরুখ খান

আপডেট সময় ০৫:৫১:৫৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৬ জুন ২০২২

তাকে বলিউডের ‘কিং খান’ বলা হয়। শাহরুখ খান তার সোজাসাপ্টা কথা এবং ব্যক্তিত্ব দিয়ে সবসময় রাজার মতো সবার মন জয় করেছেন। বিশেষ করে নারীরা। এমনকি 56 বছর বয়সেও, তিনি অনেক ষোল বছরের হার্টথ্রব ছিলেন। কি সেই কৌশল? যার সুবাদে তিনি এত সুন্দর করে নারীদের মন জয় করেছেন! সেই রহস্য ফাঁস করলেন ‘রাজা’ নিজেই।

‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’-এর নায়ক ছোটবেলা থেকেই নারীদের ঘেরে বড় হয়েছেন। পরে তিনি তার স্ত্রী গৌরী খান এবং মেয়ে সুহানার কাছ থেকে অনেক কিছু শিখেছেন।

এক সাক্ষাৎকারে শাহরুখ খান বলেন, “আমার বয়স যখন ১৪ বছর তখন আমার বাবা মারা যান। আমি আমার মায়ের কাছে বড় হয়েছি। মায়ের কোন ভাই ছিল না। নানাও আগেই মারা গেছেন। তাই পরিবার বলতে, আমার একজন মা, তিন খালা এবং একজন দাদী ছিলেন। তারপর যখন আমার মাও চলে গেলেন, তখন আমার জীবনে আমার স্ত্রী ও মেয়ে রয়ে গেল। “

স্পষ্টতই, তার পরিবারের মহিলারাই আজকের ‘রাজা’কে পৃথিবী দেখতে শিখিয়েছে। শাহরুখ জানিয়েছেন, দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মহিলাদের সঙ্গে কাজ করতে তাঁর কোনো সমস্যা নেই। নারীরাও তাকে নায়ক বানিয়েছে। কিন্তু নারীদের সম্পর্কে আসল ধারণা পেয়েছেন তিনি যখন কাজ করতে এসেছেন। তা স্বীকার করেছেন কিং খান নিজেই। শাহরুখ বলেন, “যখন আমি কাজে গেলাম, দেখলাম আমার মহিলা সহকর্মীরা অসম্ভব পরিশ্রমী। তারা আমার চেয়ে অনেক বেশি পরিশ্রম করতে পারে। এত নিয়মিত যে আমি সেটে ওঠার অন্তত 4-5 ঘন্টা আগে তারা আসত। পুরুষতান্ত্রিক বিশ্বে এখনো নারীকে দ্বিতীয় শ্রেণীর নাগরিক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। কিন্তু প্রতিমুহূর্তে তারা সেই শিক্ষা দিচ্ছে। “

‘কাল হো না হো’-এর নায়ক বলেছেন যে তিনি নারী মহলে মেয়েদের সাথে কীভাবে কথা বলতে হয় তাও শিখেছিলেন। যদি কোনো কিছুর জন্য অনুমতি নেওয়ার প্রয়োজন হয়, কোনো নারীকে রাজি করাতে হয়, তাহলে শাহরুখ জানেন কীভাবে তা করতে হয়। তাকে কখনো কোনো মেয়েকে হ্যাঁ বলতে বাধ্য করতে হয়নি, ‘বাদশা’ জোরে বলল। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস